× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

সড়কে মৃত্যুর মিছিল উত্তরায় ২ ভাই, যাত্রাবাড়ীতে মামা-ভাগ্নে নিহত

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৮:৪৮

কনে দেখা আর হলো না দুই ভাইয়ের। ছোট ভাইয়ের জন্য কনে দেখতে গিয়ে বাস চাপায় নিহত হয়েছেন দুই ভাই। শুক্রবার দুপুর পৌনে দুইটায় রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানার কাছে দুর্ঘটনাটি ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে দুইজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে ঘন্টাখানেক পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতরা আপন দুই ভাই। তাদের নাম জুয়েল শেখ (৪০) ও লিটন শেখ (৩৫)। তারা ময়মনসিংহ ফুলপুর উপজেলার বড়ইকান্দি গ্রামের হারুন শেখের পুত্র। বিকালে লাশ সনাক্ত করেন নিহতদের আরেক ভাই সোহেল শেখ।
তিনি বলেন, ছোট ভাই বাবুলের বিয়ের জন্য মেয়ে দেখতে সকালে গাজীপুর থেকে বাড্ডা যাচ্ছিলো জুয়েল ও লিটন। পথে উত্তরায় দুর্ঘটনার শিকার হয় তারা। পরে জানতে পারি লিটন ও জুয়েলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নেয়া হয়েছে। হাসপাতালে দু’জনকে মৃত অবস্থায় পেয়েছি।

সোহেল শেখ জানান, স্ত্রী ও এক মেয়ে এবং এক ছেলেকে নিয়ে গাজীপুর এলাকায় থাকতেন লিটন। সেখানে বালুর ট্রাকে কাজ করতেন। অন্যদিকে, স্ত্রী ফরিদা ও দুই মেয়েকে নিয়ে রামপুরা মহানগর প্রজেক্ট এলাকায় থাকতেন জুয়েল। তিনি পাঠাও এর গাড়ি চালাতেন।
এ বিষয়ে উত্তরা পূর্ব থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আল আরাফাত ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, উত্তরা পূর্ব থানার সামনে দিয়ে মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় অভি পরিবহনের একটি বাস তাদের ধাক্কা দেয়। এতে তারা ছিটকে পরে গুরুতর আহত হয়। পরে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। অভি পরিবহনের বাসটি নিয়ে চালক পালিয়ে যাওয়ার সময় বনানী এলাকা থেকে বাসটি জব্দ করা হয় ও চালককে আটক করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ দুটি ঢামেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সড়ক দুর্ঘটনা কেড়ে নিলো মামা ও ভাগ্নের প্রাণ
গ্রাম থেকে ভাগ্নে বেড়াতে এসেছিলেন মামার কাছে। মামার দোকান দেখার জন্য গিয়েছিলেন রাজধানীর মতিঝিল এলাকায়। পরে দোকান থেকে যাত্রাবাড়ীর বাসায় ফেরার পথে বেপরোয়া বাসের চাপায় মামা ও ভাগ্নের প্রাণ গেছে। এতে পরিবারের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহতরা হলেন, আনোয়ার হোসেন (৪০) ও তার ভাগিনা সালাউদ্দিন (২০)। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে এঘটনা ঘটে। আনোয়ার ও সালাউদ্দিনকে উদ্ধার করে ঢামেকে নিয়ে আসা পথচারী আব্দুল্লাহ জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ দিকে যাত্রাবাড়ীর সাদ্দাম মার্কেটের সামনে রাস্তা পার হবার সময় অনাবিল পরিবহনের একটি বাস তাদের ধাক্কা দেয়। এতে ২ জনই গুরুতর আহত হলে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে রাত ১টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। নিহত আনোয়ারের স্ত্রী শাহেদা বেগম ঢামেক হাসপাতালে কান্নাজড়িত কন্ঠে সাংবাদিকদের জানান, তারা সাদ্দাম মার্কেট এলাকায় থাকেন। দুই সন্তানের জনক আনোয়ার। মতিঝিল এলাকায় আনোয়ার পানির ব্যবসা করতেন। আনোয়ারের ভাগিনা সালাউদ্দিন। সালাউদ্দিন গ্রাম থেকে মামার কাছে বেড়াতে এসেছিলেন। তাদের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। তবে, কোন বাসের চাপায় তারা নিহত হয়েছে সেটি নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে একটি সিসি ক্যামেরা উদ্ধার করা হয়েছে। সেটি পরীক্ষা করে বাসটি সনাক্তের চেষ্টা চলছে। বাসটি সনাক্ত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

দেশের বিভিন্ন এলাকায় নিহত ৬
গতকাল সড়ক দুর্ঘনায় অন্তত ৬ জন নিহত হয়েছেন। এদর মধ্যে চট্টগ্রামে ২, ঝিনাইদহে ২, ঠাকুরগাঁওয়ে ১ ও শেরপুরে ১ জন রয়েছে। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অনেকে। বিস্তারিত প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে-
স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে জানান, চট্টগ্রামে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো ৫ জন। আহতদের চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট সুলতান আহমদ কুসুমপুরী সংযোগ সড়ক এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দুর্ঘটনায় নিহত দুজনের মরদেহ চমেক হাসপাতালে রাখা হয়েছে। এদের একজনের নাম ওমর ফারুক (৩০)। সে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার মৃত কোরবান আলীর পুত্র। আরেকজন কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার সাজ্জাদ হোসেনের পুত্র জাহিদ হোসেন (৪১)। এ ঘটনায় আহত ৫ জনকে হাসপাতালের ক্যাজুয়ালিটি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। পটিয়া ক্রসিং হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বিমল ভৌমিক জানান, কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামমুখী শ্যামলী পরিবহনের একটি বাসের সাথে বিপরীতমুখী পটিয়া উপজেলার শান্তিরহাট সুলতান আহমদ কুসুমপুরী সংযোগ সড়কের একটি লোকাল বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানান, ঝিনাইদহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় নিজের বিয়ের বাসরের ফুল কিনে বাড়ি ফেরার সময় শহরের কলাহাট এলাকায় গাড়ি চাপায় তন্ময় বিশ্বাসের মৃত্যু হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাড়ি ফেরার পথে একটি ফোন রিসিভ করে রাস্তার পাশে দাড়িয়ে কথা বলছিল তন্ময়। এ সময় অজ্ঞাত একটি যানবাহন তাকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। নিহত তন্ময় বিশ্বাস সদর উপজেলার কলোমনখালি গ্রামের গোলাম নবীর ছেলে। শুক্রবার ঝিনাইদহ সদর উপজেলার হাট-বাকুয়া গ্রামের একটি মেয়ের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল তার। অপরদিকে, গতকাল বেলা ১ টার দিকে কালীগঞ্জ-মল্লিকপুর সড়কের মস্তবাপুর হাইস্কুলের কাছে কালীগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা একটি রড বোঝাই আলমসাধু পেছন থেকে ধাক্কা লেগে আদনান নামে এক শিশু নিহত হয়েছে। নিহত আদনান কালীগঞ্জ উপজেলার মস্তবাপুর গ্রামের মোজাম খাঁয়ের ছেলে। প্রত্যাক্ষদর্শী ওই গ্রামের মহিদুল ইসলাম মর্মান্তিক এ ঘটনার বর্ননা করেন। কালীগঞ্জ তত্তিপুর পুলিশ ফাঁড়ির আইসি ছামছুল ইসলাম জানান, রড বোঝাই আলমসাধুটি আটক করা হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি জানান, ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ১জন নিহত ও আহত হয়েছেন ৬ জন। নিহত রফিকুল ইসলাম (৩০)সদর উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের মঙ্গলু ইসলামের ছেলে। বৃহস্পতিবার রাতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ জানায়, নিহত রফিকুল মোটর সাইকেল যোগে পীরগঞ্জ উপজেলা শহর থেকে বাড়ি ফিরছিলেন । ওই সময় বিপরীত দিক আসা প্রাইভেট কারের ধাক্কায় জামালপুর ইক্ষু খামার এলাকায় মোটর সাইকেল আরোহী ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন ।

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি জানান, শেরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় সাইদুর রহমান নামে একজন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের ধুনকুন্ডি এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় ট্রাকের চাপায় নিহত হন তিনি। নিহত সাইদুর রহমান গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের মৃত রহিম উদ্দিনের ছেলে। শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক ফজলুর রহমান জানান, গাইবান্ধা থেকে বাস যোগে বিশ্ব ইজতেমায় যাচ্ছিল একদল মুসুল্লী। এসময় অজ্ঞাত একটি ট্রাক চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর