× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

পাকিস্তানে দলের সঙ্গে থাকবেন খাবেন বিসিবি সভাপতি

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, ৮:৫০

জাতীয় দলের হয়ে বিদেশ সফরে নিয়মিতই যেতে হয় মাহমুদুল্লাহ-তামিমদের। তবে এবারের সফরটা একেবারেই অন্যরকম। শঙ্কা আর অনিশ্চয়তার মধ্যেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) পাকিস্তান সফরে যেতে রাজি হয়েছে। অনেক আলোচনা-সমালোচনায় ভরা বাংলাদেশ দলের পাকিস্তান সফর নিয়ে প্রশ্নটা মূলত নিরাপত্তা নিয়েই। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) অবশ্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাসই দিয়েছে বিসিবিকে।
আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে বিসিবিও পিসিবির দেয়া আশ্বাসে সন্তুষ্ট। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন রোববার টাইগারদের অনুশীলনে এসে পাকিস্তান সফর নিয়ে কথা বলেছেন। অনুশীলনে ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা নিয়ে সন্তুষ্টির কথা জানিয়ে ভালো খেলার উৎসাহও জুগিয়েছেন বিসিবি সভাপতি।
এরপর তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি বলেন,‘ক্রিকেটে মানসিকভাবে স্থির থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ। মানসিকভাবে স্থির না থাকলে স্বাভাবিক পারফর্ম করাটা কঠিন। আমি ওদের (ক্রিকেটারদের) বললাম নিরাপত্তা নিয়ে ভাবনার কিছু নেই। পুরোপুরি মনযোগ দিতে হবে খেলায়।’ ক্রিকেটারদের সাহস যোগাতে দলের সঙ্গে পাকিস্তানে যাচ্ছেন নাজমুল হাসানও। তিনি বলেন,‘পাকিস্তানে আমি যাচ্ছি। ব্যক্তিগত কাজ থাকায় দলের সঙ্গে যেতে পারছি না। তবে প্রথম ম্যাচের আগেই আমি সেখানে (পাকিস্তানে) পৌঁছবো। ওদেরকে বললাম যে চিন্তার কিছু নেই, ঠাণ্ডা মাথায় খেলবে। ইনশাল্লাহ কিছু হবে না। আমি আসছি, একসঙ্গে থাকবো, একসঙ্গে খাবো। কোনো অসুবিধা নেই।’ ক্রিকেটারদের পাশাপাশি পাকিস্তানে সিরিজ কাভার করতে যাওয়া সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিয়েও ভাবছে বিসিবি। নাজমুল হাসান বলেন, ‘আপনারা (সাংবাদিকরা) যেন সর্বোচ্চ নিরাপত্তা পান সেটার দায়িত্বও আমাদের। বাংলাদেশ থেকে যাওয়া সংবাদকর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়টি দায়িত্বরতদের জানানো হবে।’
গতকাল মিরপুরে শুরু হওয়া তিনদিনের অনুশীলন ক্যাম্পের প্রথম দিনে যোগ দেননি টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, স্পিনিং অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত। জ্বরের কারণে অনুপস্থিত ছিলেন মাহমুদুল্লাহ। অসুস্থ মায়ের পাশে থাকতে অনুশীলনে যোগ দেননি মেহেদী হাসান। নাজমুল বিপিএল ফাইনাল শেষে গ্রামের বাড়ি রাজশাহীতে গিয়েছিলেন। গতকালই রাজশাহী থেকে ঢাকায় ফেরার কথা তার। টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে না থাকলেও এদিন দলের সঙ্গে অনুশীলনে যোগ দেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম, অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও পেসার ইবাদত হোসেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর