× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

বাংলাদেশ-পাকিস্তান হাইভোল্টেজ টি-২০ ম্যাচে নিরাপত্তা দেবে ১০,০০০ পুলিশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ১০:২৪

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে আগামী ২৪শে জানুয়ারি বাংলাদেশ-পাকিস্তানের মধ্যে হাই ভোল্টেজ টি-২০ ক্রিকেট আসর। এতে নিরাপত্তা দিতে কমপক্ষে ১০,০০০ পুলিশ সদস্যকে মোতায়েন করা হচ্ছে। সার্বিক নিরাপত্তা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে পুলিশ (অপারেশন উইং)। এ ছাড়া খেলা দেখতে যাওয়া দর্শকদেরকে তিন স্তরের নিরাপত্তা বেষ্টনি পাড় হতে হবে। তিনটি স্তরে নিরাপত্তা বেষ্টনিতে তাদেরকে চেক করে তবেই স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে দেয়া হবে। এতে সুনির্দিষ্ট কিছু জিনিস স্টেডিয়ামে নিয়ে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকবে। এ খবর দিয়ে পাকিস্তানের অনলাইন দ্য নিউজ বলছে, নিরাপত্তা পরিকল্পনা অনুযায়ী, কমপক্ষে ১০ হাজার পুলিশ কর্মকর্তা, অফিসিয়াল এই পরিকল্পনায় দায়িত্ব পালন করবেন। এর মধ্যে রয়েছেন ১৭ জন এসপি, ৪৮ জন ডিএসপি, ১৩৪ জন পরিদর্শক, ৫৯২ জন উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের লোক।
তিনটি ম্যাচ হবে এই দুই দেশের মধ্যে। একে পুরোপুরি নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলতে পুলিশ কর্তৃপক্ষ এমন উদ্যোগ নিয়েছে।

লাহোর পুলিশের উপ মহাপরিদর্শক (অপারেশন উইং) রাই বাবর সাঈদ এসব তথ্য দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, এসব নিরাপত্তা রক্ষাকারী যেমন বাংলাদেশী খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা নিশ্চিত করবে, তেমনি পাকিস্তানি ক্রিকেট খেলোয়াড়দেরও। টি-২- ম্যাচ যাতে শান্তিপূর্ণ হয় সে জন্য সব রকম প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, খেলোয়াড়দের টিম যেখানে অবস্থান করবে, ম্যাচের ভেন্যু ও তাদের চলাফেরা সার্বক্ষণিকভাবে নজরদারিতে রাখা  হবে। স্টেডিয়ামের চারদিকে সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
mohammed ullah
২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ৯:০৪

RIGHIT?TAR POREOTO PAKISTAN BOLE KOTHA

major (retd) nasir u
২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:০৩

thanks pakistan. turn the tide. it is now your responsibility. show to the people of bangladesh that you are humane.

Md.Waliur Rahman
২১ জানুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ১১:০৩

very good necessary action,Thanks

অন্যান্য খবর