× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার

পুলিশকে জনগণের পক্ষে কাজ করার আহ্বান

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৯:২৮

পুলিশ প্রশাসনকে জনগণের পক্ষ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মেয়র প্রার্থী  ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। তিনি বলেন, ঢাকা শহর হবে শান্তির জনপদ। এখানে কোন সন্ত্রাসীর স্থান হবে না। গতকাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে  প্রচারণার ১৩তম দিনে পশ্চিম হাজারীবাগের ঝাউচর বাজার থেকে দিনের কর্মসূচি শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। ইশরাক হোসেন বলেন, যেখানেই গিয়েছি সেখানেই ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার দেখেছি। ইনশাল্লাহ ফেব্রুয়ারিতে আমরাই বিজয় উৎসব করবো। এটি হবে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের  প্রাথমিক বিজয়। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার বিজয়।
সকাল সাড়ে এগারটায় ঝাউচর বাজার থেকে গণসংযোগ কর্মসূচি শুরু করে তিনি। সেখান থেকে হাজারীবাগ বেড়িবাঁধ হয়ে ৫৫, ৫৬, ৫৭ নং ওয়ার্ডের ইসলামবাগ ও চকবাজার হয়ে লালবাগ শাহী মসজিদে নামাজের বিরতি নেন।

বিরতরি পর ২৯, ৩০, ২৭ ও ৩১ নং ওয়ার্ডে ও নয়াবাজারে নির্বাচনী  প্রচারণা ও গণসংযোগ করেন। এর আগে সকাল থেকে নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে কামরাঙ্গীর চরের ঝাউচর বাজারে সমবেত হতে থাকেন। নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান ও ধানের শীষে ভোট চান। গণসংযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর এমাজউদ্দিন আহমেদ, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবীব-উন নবী খান সোহেল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, বিএনপি নেতা মীর সরাফত আলী সফু, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরতাজুল করিম, মাহবুবুল হাসান পিংকু ভূইয়াসহ স্থানীয় বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের বিপুল সংখ্যক কর্মী-সমর্থক অংশ  নেন। প্রফেসর এমাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, আধুনিক বাংলাদেশ নির্মাণের জন্য তরুণদের এগিয়ে আসতে হবে। এর জন্য ইশরাক হোসেন-এর মতো লোক দরকার। আমরা বয়স্করা যা করতে পারিনি,তার হাত ধরে বাংলাদেশে নতুন করে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের সূত্রপাত হবে। তার বাবা সাদেক  হোসেন খোকা ছিলেন আমার ছাত্র। খোকা  বেঁচে থাকতে তার অধরা  যে স্বপ্নগুলো ছিল, আমি ইশারাকের জন্য  দোয়া করি সে যেন তার বাবার স্বপ্নগুলো পূরণ করতে পারে।  তাবিথের ওপর হামলার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে ইশরাক হোসেন বলেন, পুলিশের উপস্থিতিতে গতকাল উত্তরের মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের প্রচারণায় ন্যক্কারজনক হামলা চালানো হয়েছে।

২৪ ঘন্টার বেশি হতে চললো,কিন্তু আমরা এখন পর্যন্ত কাউকে  গ্রেপ্তার হতে  দেখলাম না। তিনি পুলিশ-প্রশাসনের  প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন,আপনাদের ওপর জাতীয় গুরুদায়িত্ব রয়েছে,সেটা পালন করুন। নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকেও আপনাদের যে সাংবিধানিক দায়িত্ব  দেয়া হয়েছে সেটা নির্ভয়ে পালন করুন। জনগণের পক্ষ হয়ে কাজ করুন, জনগণ আপনাদের পাশে থাকবে। তিনি বলেন,আজকে যারা ক্ষমতাসীন আছেন তারা এই দেশটাকে দখল করে রেখেছেন। ক্ষমতার ভাগবাটোয়ারার বাইরের মানুষ তৃতীয় শ্রেণীর নাগরিকের মর্যাদাও পাচ্ছেন না। তাদের কথা বলার অধিকার  নেই, বাক-স্বাধীনতা নেই, ভোটের অধিকার  নেই। ৩০ লাখ শহীদের বিনিময়ে অর্জিত একটা স্বাধীন  দেশে এটা দীর্ঘদিন চলতে পারে না, আর আমরা এটা মানবো না। জনগণের অধিকার জনগণকে ফিরিয়ে দিতে পহেলা ফেব্রুয়ারী ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান তিনি। বিভিন্ন স্থানে ধানের শীষ প্রতীকের গণসংযোগে ও সভা-সমাবেশে বাঁধা দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে ইশরাক হোসেন বলেন, আজকেও এখানে আসার আগে আমাদের  প্রচারণায় বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর