× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার

মানুষ ভোট দিতে পারলে জয় নিশ্চিত

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৯:২৯

ঢাকা উত্তরে বিএনপি’র মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেছেন, ধানের শীষের পক্ষে গণজোয়ার বইছে, আমার গণসংযোগে ভোটাদের ঢল নামছে। তাই প্রতিপক্ষ এখন আতঙ্কিত। মানুষ ভোট দিতে পারলে ধানের শীষের জয় নিশ্চিত। মঙ্গলবার সকালে আশকোনা হাজী ক্যাম্প থেকে গণসংযোগ শুরুর আগে পথ সভায় তিনি এসব কথা বলেন। গণসংযোগ চলাকালে প্রতিপক্ষকে হুঁশিয়ার করে দিয়ে তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য আওয়ামী লীগের দু’একজন শীর্ষ ব্যক্তিত্বকে প্রশ্রয় দেবো না। তিনি আরো বলেন, আমার উপর হামলার সময় উত্তর সিটিতে আওয়ামী লীগের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মুজিব সারওয়ার উপস্থিত ছিলেন। তারা আমাকে চিহ্নিত করে হামলা করেছেন। এখন পুলিশকে প্রভাবিত করতে চেষ্টা করছেন।
গত রাতে এ ঘটনায় থানায় মামলা নেয়নি। এখন আমরা নির্বাচন কমিশনের তদন্তের অপেক্ষায় আছি। বিএনপি নির্বাচন করছে না খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন করছে আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে তাবিথ বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন আজকে বাংলাদেশের বৃহত্তর জনমানুষের মুক্তির সংগ্রাম। তারা ভোটের মাধ্যমে রায় দিতে চান। কারণ, তারা দুর্নীতি ও দুঃশাসনকে প্রশয় দেবেন না। খালেদা জিয়ার মুক্তি সবার মুক্তি সংগ্রামকে একত্র করবে।

এর আগে তাবিথ হাজিক্যাম্পের সামনে পথসভা করার সময় সড়কের বিপরীত পাশে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের জটলা বাঁধতে দেখা যায়। ‘ধানের শীষের প্রচারণার পাশেই আওয়ামী লীগের প্রচারণা চলছে। এতে সংঘর্ষ হওয়ার আশঙ্কা আছে কিনা’ সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপির মেয়র প্রার্থী বলেন, আওয়ামী লীগের কর্মীরাও তাদের নেতাদের কথা ও কাজ দেখে ঘৃনা প্রকাশ করছে এবং বিরক্ত হচ্ছে। সকলে চায় আনন্দ উৎসবের মধ্যে একটা সুষ্ঠু নির্বাচন। কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতারা সেটা চায় না। আমি অনেক আওয়ামী কাউন্সিলর প্রার্থীর কাছে ভোট চেয়েছি, হাত মিলিয়েছি। শুভেচ্ছা বিনিময় করেছি। আজও লক্ষ্য করেছি, আমাদের নেতা আ স ম রব যখন বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তখন রাস্তার উল্টোদিকে আওয়ামী নেতা-কর্মীরা জড়ো হয়েছেন। তারা বক্তব্য শুনছিলেন। তারা সমর্থন করে একমত হয়েছেন। এতে বুঝা যায়, আওয়ামী লীগের দু-একজন বিশেষ মহলের নেতার আচরণ দেখে বিরক্ত হচ্ছেন। পরে গণসংযোগটি হাজীক্যাম্প থেকে দক্ষিণখানের প্রেমবাগান, গাওয়াইর হয়ে চেয়ারম্যানবাড়ী, থানা রোড, কাওলা স্টাফ কোয়াটার, ৪৮নং ওয়ার্ডের নাগরিয়া বাড়ি, প্রতিবন্ধি সংস্থা, ৪৪নং ওয়ার্ডে দোবাদিয়া বাজার, কাঁচকুড়া, ৫০নং ওয়ার্ডের কসাই বাড়ী, আজমপুর কাঁচাবাজার গণসংযোগ চালান। সেখান থেকে উত্তরা ৪, ৬, ৮ ও ৯ নং সেক্টরে এসে শেষ হয়।  এ সময় তার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের মধ্যে শামা ওবায়েদ, সাইফুল আলম নীরব, কলিমউদ্দিন আহমেদ মিলন, গফুর ভূঁইয়া, নজরুল ইসলাম আজাদ, ঐক্যফ্রন্টের দপ্তর প্রধান জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন (টিফিন ক্যারিয়ার প্রতীক), ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আলী আকবরসহ (টিফিন ক্যারিয়ার) বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহবান আবদুর রবের: তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহবান জানিয়ে বাংলাদেশের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদের) এর সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেন,‘আপনারা ভোট কেন্দ্রে যাবেন। আমরা গণতন্ত্র পূনঃউদ্ধারের জন্য এই সংগ্রাম করছি। বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট দিয়ে ফলাফল না নিয়ে বাড়ি ফিরবেন না। এটা আপনাদের ন্যায্য অধিকার। তাবিথ আউয়াল বিএনপি, খালেদা জিয়া, ঐক্যফ্রন্ট ও ধানের শীষের প্রার্থী। তাকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করুন। আজ আমি এই গণসংযোগে আসার সময় তাবিথের প্রচারণায় জনগণের যে গণজোয়ার দেখছি, তাতে আগামী ১লা ফেব্রুয়ারি ধানের শীষের বিজয় হবেই হবে, ইনশাআল্লাহ।’ তিনি বলেন, আপনারা যদি চোর, ডাকাত ও সন্ত্রাসী বন্ধ চান, সরকারের ৬০জন মন্ত্রী ও ৫৫টা প্রতিষ্ঠান আছে। এই মেয়রদের মশা মারার ক্ষমতা নাই। তাবিথ আউয়ালকে ভোট দিলে মেট্রোপলিটন সরকার করা হবে। আপনারা নিরাপদে রাজধানীতে বসবাস করতে পারবেন। ব্যবসায়ী, রিকসা চালক, শ্রমিক ও সর্বস্তরের ভাইয়েরা আপনারা ধানের শীষে ভোট দিয়ে তাবিথ আউয়ালকে জয়যুক্ত করুন। এদিকে তাবিথ আউয়ালের গণসংযোগে জনতার ঢল দেখে পূর্বে কোনো ঘোষণা ছাড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগ দক্ষিণ খান বাজারে তাৎক্ষণিক সভা ডাকায় বিএনপির পূর্বনির্ধারিত পথসভা করতে দেয়নি পুলিশ। তাবিথ আউয়ালসহ বিএনপির নেতাকর্মীদেরকে দক্ষিণ খান চেয়ারম্যান বাড়ির পাশ দিয়ে উত্তরা আনোয়ারা মডেল কলেজ রোড় দিয়ে বিএনপির গণসংযোগ ঘুড়িয়ে দিয়েছে পুলিশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর