× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার

বন্দরে জাহাজের নিচে চাপা পড়া দুই নির্মাণ শ্রমিকের লাশ উদ্ধার

বাংলারজমিন

বন্দর (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি | ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৮:৩২

বন্দরে জাহাজের নিচে চাপা পড়ে নিহত দুই  নির্মাণ শ্রমিকের লাশ  উদ্ধার করেছেন সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্মীরা। দুর্ঘটনার ২৪ ঘন্টার পর গতকাল দুপুরে ড্রেজারের মাধ্যমে বালু অপসারণ করে তাদের লাশ  উদ্ধার করা হয়। বন্দর, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, আনন্দ ডকইয়ার্ড এবং বিআইডব্লিউটিএ’র ডুবুরী দল পাঁচ ঘন্টার চেষ্টা চালিয়ে প্রথমে রাসেলের লাশ এবং দুইটার দিকে ইয়া রাসুলের লাশ উদ্ধার করের। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বন্দরের বিবিজোড়া এলাকার স্নেহা শিপইয়ার্ড এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস নামে একটি বেরকারি ডকইয়ার্ডে নির্মিত ১৪শ’ টন ওজনের একটি নতুন জাহাজ পানিতে নামানোর  সময়  হুইল ওয়্যারের তার ছিড়ে যায়। এসময় জাহাজের নিচে চাপা পড়ে নিহত হন রাসেলে ও ইয়া রাসুল নামে দুই নির্মাণ শ্রমিক। বন্দর  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকার জানান, শুক্রবার দুপুরে শ্রমিকদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারের পর রাসেলের লাশ তার ছেলে হৃদয়ের নিকট ও ইয়া রাসুলের  লাশ তার স্ত্রী ও বড় ভাইয়ের নিকট হস্তান্তর করা হয়। জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে প্রত্যেক পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হয়েছে।
বিকেলে ফ্রিজিং গাড়িতে করে রাসেলের লাশ চুয়াডাঙ্গা ও ইয়া রাসুলের লাশ গাজীপুরের টঙ্গীতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।  
বন্দর  ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, বন্দরের মীরকুন্ডি বিবিজোড়া এলাকায় ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে  স্নেহা শিপইয়ার্ড এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস নামে একটি ডকইয়ার্ড নির্মাণ করেন আবুল কালাম নামে এক ব্যক্তি। সম্প্রতি এ ডকইয়ার্ডে একটি বড়  জাহাজ নির্মাণ করা হয়। নির্মাণ শেষে জাহাজটি  বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার একটু আগে স্লিপওয়ে দিয়ে পানিতে ভাসানোর সময় স্লিপওয়ে দেবে গিয়ে দুই শ্রমিক মারা যান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর