× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার
বিয়ের অনুষ্ঠানে খরচ ৫ লাখ ডলার

বাংলাদেশী সমকামী ইয়াশরিকা বিয়ে করলেন মার্কিন সমকামী যুবতীকে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১২:৫০

বাংলাদেশী সমকামী নারী ইয়াশরিকা জাহরা হক বিয়ে করলেন আরেক সমকামী নারীকে। তার পছন্দের নারী যুক্তরাষ্ট্রের ইলিকা রুথ কুলি। দু’জন দু’জনকে ভালবেসে অনেকটা সময় পার করার পর বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। আর প্রায় ৫ লাখ ডলার খরচ করে তারা সম্প্রতি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেন। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী নিউ ইয়র্ক টাইমস সহ বিভিন্ন মিডিয়ায় অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, ইয়াশরিকাই সম্ভবত প্রথম বাংলাদেশি সমকামী নারী, যিনি প্রথম উত্তর আমেরিকার আরেক সমকামী নারীকে বিয়ে করলেন। গড়ে তুললেন নিজের মতো করে ভালবাসার স্বপ্নের ঘর।


এই বিয়ে নিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস সংবাদ শিরোনাম করেছে ‘ডে বন্ডেড ওভার ক্যারামেল পাই’।
বিলম্বে প্রকাশিত ওই রিপোর্টে বলা হয়, গত ৭ই জুন বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন ইয়াশরিকা জাহরা হক ও ইলিকা রুথ কুকলি। এ জন্য ব্রুকলিনে গ্রিন বিল্ডিংয়ে আয়োজন করা হয় বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা। সেখানে দু’জনকে অতিথিদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে পরিচয় করিয়ে দেন তাদের বন্ধু ইজিনে এম ওকপো। এরপর ৯ই জুন তাদের আরেক বন্ধু মাহিন কলিম ব্রুকলিনের ডব্লিউ লফট-এ বাংলাদেশী রীতিতে আরেকটি অনুষ্ঠান আয়োজন করেন।


ইয়াশরিকা হক যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটানে ফেনউইক অ্যান্ড ওয়েস্ট নামের একটি আইনি প্রতিষ্ঠানে এসোসিয়েট হিসেবে কর্মরত। তার বয়স এখন ৩৪ বছর। তিনি জর্জটাউন থেকে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেছেন। আইন শাস্ত্রে ডিগ্রি অর্জন করেছেন নর্থওয়েস্টার্ন থেকে। তিনি র‌্যাপিড সিটির ইয়াসমিন হক ও ইয়ামিন হকের মেয়ে।

অন্যদিকে কুকলির বয়স ৩১ বছর। তিনি হেয়ারইউএসএ নামের একটি শ্রবণ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ। তিনি গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেছেন ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস থেকে। ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাস, ডালাস থেকে অর্জন করেছেন অডিওলজিহতে ডক্টরাল ডিগ্রি। তিনি হলেন টেক্সাসের ডেনটনের ক্যারোল জি কুকলি এবং জেফ্রে এ কুকলির মেয়ে।


এই দুই ভুবনের দুই যুবতীর প্রাথমিক সাক্ষাত হয় সমকামী অধিকার বিষয়ক পার্টি এলজিবিটিকিউ প্রাইড-এ। ২০১৫ সালে ওই পার্টি দিয়েছিলেন ইয়াশরিকা হক। এ সময়ে তিনি চেনেন না এমন সব মানুষকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য ইয়াশরিকা হককে ইমেইল পাঠিয়েছিলেন তার এক বন্ধু। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশী কায়দায় বাংলাদেশী সমকামী  ইয়াশরিকা তার পছন্দের নারী সমকামী  কুকলিকে বিয়ে করে তাকে স্বামী হিসাবে গ্রহণ করে নিয়েছেন।

নিজেদের প্রেমের কথা জানাতে গিয়ে ইয়াশরিকা বলেন, কুকলিকে প্রথম দেখার পর আমার যে কেমন লেগেছিল তা বলতে পারব না। তখন সে ছিল একা। আমিও তার প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠেছিলাম। পরের বার দেখা হবার পর আমাদের কথা হয়।


ইয়াশরিকা বলেছেন, এসব মানুষের সবাইকে তিনি চিনতেন না, যারা ওই আয়োজনে তার এপার্টমেন্টে গিয়েছিলেন। তাই সবাইকে জানার ও চেনার চেষ্টা করি। কুকলিকে দেখে আমার যেন হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। ওই রাতের পার্টিতে তাকে আমি কমপক্ষে ৫০০০ বার বিয়ার অফার করেছিলাম। এটা স্মরণ করতে পারি। কারণ, এটাই ছিল একমাত্র বিষয়, যার মাধ্যমে আমি তার কাছে আমাকে তুলে ধরতে পারবো।

এর দু’এক মাস পরে তাদের আবার দেখা হয় একটি কার্ড পার্টিতে। ওই সময় মিস কুকলি পরিষ্কার বুঝতে পারেন যে, তার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েছেন মিস ইয়াশরিকা হক। কুকলির ভাষায়, ঠিক ওই সময়েই আমি বুঝতে পারি যে, ইয়াশরিকা আমার প্রেমে পড়েছে। আমিও তেমনটা হওয়ায় ওই রাতের পুরোটাই আমরা কাটিয়েছি উন্মত্ততায়, বাধাহীনভাবে।

ইয়াশরিকা হক সম্পর্কে কুকলি আরো বলেন, সে খুব বেশি কেয়ারিং। সহানুভূতিশীল, মুক্তমনা। এমন মনখোলা মানুষ আমার জীবনে আমি আর দেখি নি। আরো ভাল করে বলা যায়, তার কাছে জীবন হলো বেঁচে থাকা না হয় মরে যাওয়া। সে যদি আপনার পাশে থাকে তাহলে কোনো কিছুর তোয়াক্কা নেই।



ইয়াশরিকা হক বলেন, সব কিছু শেষে মনে হচ্ছে, দুটি চুম্বক একসঙ্গে লেগে গেছে। (সাক্ষাতের আগে) ওই সময় পর্যন্ত আমি সিঙ্গেল থাকার চেষ্টা করেছি। আমি চাইনি কেউ একজন আমার সঙ্গে যুক্ত হোক। (সম্ভবত তিনি একে একজন পুরুষ সঙ্গীর বিষয়ে বলতে চেয়েছেন)। তাই কার্ড পার্টির রাতে ইয়াশরিকা হক একটি গোপন অস্ত্র ব্যবহার করেছিলেন। সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন সেটা। তা হলো একটি ক্যারামেল আপেল পাই।

ইয়াশরিকা বলেন, আমি তাকে এই পাই’য়ের খুব ভাল একটি পিস দিতে চেয়েছিলাম। কুকলির এ বিষয়টি জানা প্রয়োজন ছিল। আমার কাছে এটা ছিল সিকিউরিটি ডিপোজিটের মতো।
আর অল্প সময়ের মধ্যে সেই ডিপোজিট থেকে লভ্যাংশ আসতে লাগলো।

কুকলি ফেসবুকের মাধ্যমে ক্যারামেল আপেল পাইয়ের রেসিপি চেয়ে একটি বার্তা পাঠান ইয়াশরিকাকে। এ থেকে তাদের মধ্যে রান্নাঘরেও অভিন্নতা দেখা দেয়। ইয়াশরিকা বলেন, কুকলি অবিশ্বাস্য একজন কুক। প্রতিদিন সে আমাকে দুপুরের খাবার প্রস্তুত করে দেয়। বিষয়টি বিশ্বে খুবই চমৎকার বিষয়। তিনি বলেন, কুকলি রান্না করে। আর আমি বেকিং করি। এসব মিলে আমাদের জীবন সুখের হয়ে উঠেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
kawsar ahmed
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৭:২৫

বাস্তবতা অতিব কঠিন । আমরা চাই এ মিশন বন্ধ হোক। কারণ এ কাজটি প্রশ্নবিদ্ধ

Shahdat
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৬:৪৩

মঝা পেলাম কমেন্ট পড়ে

moshiur
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৭:২২

খবরের চেয়ে বরং পাঠকদের মন্তব্যগুলো পড়ে অনেক অনেক বিনোদন পেলাম।

Obak
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৬:৪৮

বিয়ে একটা সামাজিক বন্ধন যা সকল ধর্মেই স্বিকৃত এক প্রথা, আর সমকামিতা সকল ধর্মেই নিষিদ্ধ। সমকামী একটা ব্যাধি , অনেক সময় হরমোনের কারণে কারো কারো মাঝে এমনটা হয়। কিন্তু প্রশ্ন হলো আপনি সমকামী নিয়ে ধর্মের বাধা মানলেন না আবার ধর্ম মেনে বিয়ে করলেন !! কেমন যে স্ববিরোধী হয়ে গেল না ??

এ, এইচ মাসুদ
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৬:২৮

এই সব ফালতু খবর শুধুমাত্র সামাসজক মূল্যবোধকে ধ্বংস করে।

Badsha Wazed Ali
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৫:৩৯

একজন মুসলীম সমকামী নারী হওয়ার কারনে, পশ্চিমা বিশ্ব প্রচুর টাকা খরচ করেছে। তবে, এটা কখনোই সামাজিক ভাবে মুসলিমদের মধ্যে প্রতিষ্ঠা করা যাবে না।

nasir uddin, Al Atti
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৫:৩৮

এটি আপত্তিজনক নিন্দনীয়, কখনও সমর্থন করা হবে না। তবে বর্তমানে বিশ্বের রাজনৈতিক নেতা, ধর্ম নেতা, এবং মুসলমান নেতৃবৃন্দ কেউ এর দায়িত্ব এড়াতে পারেন না

nasir uddin, Al Atti
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৫:৩৬

এটি আপত্তিজনক নিন্দনীয়, কখনও সমর্থন করা হবে না। তবে বর্তমানে বিশ্বের রাজনৈতিক নেতা, ধর্ম নেতা, এবং মুসলমান নেতৃবৃন্দ কেউ এর দায়িত্ব এড়াতে পারেন না

Mohammed Ali
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৪:৩৫

নিরপেক্ষতার কারণে মানবজমিন পত্রিকা সবচাইতে বেশী পড়তে ইচ্ছে হয়। সম্পাদক সাহেবর প্রতি অনুরোধ এই ধরনের কুরুচিপূর্ণ সংবাদ প্রকাশ না করলে খুশি হব।

ظهير احمد
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:০৫

শুধু একবার যদি ভাবতো তারা যে আমাদের দ্বারা পৃথিবীর কোনো ও উপকার তো হবেই না, বরং আমাদের মা হবার সম্ভাবনা টিও আমাদের সম্পর্কে সম্ভব নয়।তবেই কৃত্রিম এ উম্মাদনাকে হারাতে পারতো। বানোয়াট যৌনাচার মনের মধ্যে হাহাকার বাড়ায়।আর জীবনের শেষ মুহূর্তে আবর্জনার স্তূপে ও তারা বেমানান লাগে।

মুশফিক
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:৫৬

খবরের চেয়ে বরং পাঠকদের মন্তব্যগুলো পড়ে অনেক অনেক বিনোদন পেলাম। চালিয়ে যান সবাই।

safiq
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:৫৪

নাউজুবিল্আলাহ ! আল্লাহর বিচার হবে খুব তারাতারি !

Abdul Hasib
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ২:৫৪

মানুষ যখন জাহিলীয়াতের দিকে হাত বাড়ায় তখন ধর্ম ও তাদের দৃষ্টিতে মূল্যহীন হয়ে যায় ।

এটিএম তোহা
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ২:৩৮

সমকামীতা বিয়ে নয়,বিয়ের আড়ালে দুটো মেয়ে তাদের যৌনতা মেটাবে আর্টিফিশিয়াল যৌনাঙ্গ দিয়ে। এমন পরিস্থিতিতে তারা একসময় এমন সব যৌনরোগে আক্রান্ত হবে যা নিরাময়যোগ্য নয়। যৌনতা শুধু সাময়িক দুজনের সুখানুভূতির বিষয় নয়;এর দ্বারা পৃথিবীতে প্রাণের সঞ্চার হয়। যারা সমকামী তাদের যৌনতার ফলাফল কী? বলা যায় শূন্য। তাহলে নির্দ্বিধায় বলা যায় সমকামীরা এ পৃথিবীর সব সুযোগ-সুবিধাই নিজেরা গ্রহন এবং উপভোগ করছে। পক্ষান্তরে পৃথিবীতে তাদের কোন অবদানই নেই। যাদের অবদান নেই, তাদের পৃথিবীতে বেঁচে থাকার অধিকারও নেই।এরা ধর্মীয়ভাবে ভাবে যেমন জাহান্নামী মানবিক বিশ্বেও অপরাধী। আল্লাহ এদের হেদায়েত দান করু, নতুবা ধ্বংস করুন।

শাহিন আহমেদ
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ২:৩৫

নাউজুবিল্লা

KS MASUM
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:২৫

কিয়ামতের আলামত

zahir uddin Md. BABU
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ৩:২২

Just Wait for eternal day., Absolutely you will take its taste .

Saklaen
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ২:৫৯

Naujubillah

মইন
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:৫৪

লুত আ: এর কাওমের এই ধরনের অভ্যাস ছিল, আল্লাহ সুবহানাহু তায়ালা জমীন কে উল্টে দিয়ে তাদের সমুলে ধ্বংশ করে দিয়েছিলেন। এটা জঘন্য পাপ।

Borno bidyan
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:৫১

সমকামিতা প্রাকতিক ধারার বিপরীতে একটি বিকৃত রুচি! যাকে পুঁজি করে সংবাদ সৃষ্টি করে অনেকেই অখ্যাত থেকে কুখ্যাত হতে চায়! ইশরিকাকে সুশিক্ষা দিতে তার বাবা-মা ব্যর্থ হয়েছে! আমরা যারা অভিভাবক তাদের উচিত প্রজুক্তির আড়ালে সন্তান যেন উচ্ছিন্নে না যায়,তার প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখা !

Belal
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:২৪

ধংস হোক

সুষমা
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:০২

শিক্ষিত মানুষের শিক্ষার এই লক্ষণ ?? ধিক্ শতধিক্ ! মূর্খ !

হারুন অর রশিদ
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১২:৫৫

তুই ধ্বংস হ কুত্তার বাচ্চা। ধর্মীয় নিয়মকানুনের বাইরে গিয়ে এসব করে তোর জন্য এখন একটা বিষয়ই বাকী আছে।তা হল সর্বশক্তিসময় আল্লাহর গজব।

মাছুম
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:৪০

আল্লাহকে ভয় কর।

আজিজ
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১২:৩৪

পাঠকরা বিষয়টা পড়ে কি ভাবছে জানি না। প্রথমত এটা প্রচার করার মত সংবাদ নয়। দ্বিতীয়ত এসব মানুষ জন্তু জানোয়ার এর চেয়ে জঘন্য। কেননা পশুরাও এমন বাজে নোংরামি করে না। এমন উদাহরন নেই। যেহেতু ওরা মানুষ সেখানে কিছু বলতেই হবে। হোক বাংলাদেশি কিংবা বিদেশি। আমি মানুষ জাতি হিসাবে মনে করি ওরা পশুরজাত থেকে মোটেই দূরে নয়। এর জন্য কঠিন দিন অপেক্ষা করছে । ইনশাআল্লা।

Sultan
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১২:২৯

আল্লাহ্রর নালত তৌর উপর, তুই দুনিয়ার আকর্ষণে পড়ে অনন্ত কালের আখেরাতকে হারিয়ে বরবাদীদের অন্তর ভুক্ত হইলি। আল্লাহ্রর কঠিন আজাব ভোগ করে তোকে দুনিয়া থেকে বিদায় নিতে হবে ও অনন্ত কালের জন্য মহান আল্লাহ্রর কঠিন জাহান্নমে নিক্ষিপ্ত হইবি। বাকি সবই মহান আল্লাহ্ ভাল জানেন।

Reza
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১:২২

সমকামিতার মত জঘন্য বিষয়টিকে এমনভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে যা দেখে মনে হয় এ যেন বাংলাদেশের নারীর আরেকটি এভারেস্ট বিজয় ।এতে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল হল। যেন বাংলাদেশের নারীদের উন্নয়নের দ্বার খুলে গেলো।

Zoynal
২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, ১২:১৭

Naujubillah.

অন্যান্য খবর