× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার
আলাপন

‘আমি কিন্তু পরিকল্পনা করে কিছু করি না’

বিনোদন

| ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার, ১১:৪২

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি। বর্তমানে গান নিয়ে বেশ ব্যস্ত সময় পার করছেন। স্টেজ শো ও নতুন গানে নিয়মিত তিনি। নিজের বর্তমান ব্যস্ততা ও ক্যারিয়ারের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। তার সঙ্গে কথা বলে লিখেছেন ফয়সাল রাব্বিকীন

কেমন আছেন?
বেশ ভালো আছি। ভালো থাকার চেষ্টাটা করে যাচ্ছি।
ব্যস্ততা কি নিয়ে এখন?
ব্যস্ততাতো পরিবার ও গান নিয়ে। পরিবারকে সময় দেয়ার পর যে সময়টুকু পাই তা গানে দেই। বেশ কিছু টিভি অনুষ্ঠানেও সময় দিয়েছি কত কয়েকদিনে।
তাছাড়া ষ্টেজ শো করছি। নতুন গানের কাজও চলছে।

সামনেই ভালোবাসা দিবস। নতুন গান তো আসছে?
নতুন বেশ কয়েকটি গানের কাজ করেছি। এরমধ্যে কয়েকটি গান ভালোবাসা দিবসে আসার কথা রয়েছে। এরমধ্যে দুটি গানের কথা লিখেছেন জামাল হোসেন। ‘ঘুমন্ত মন’ শিরোনামের গানটির সুর ও সংগীত করেছেন হৃদয় হাসিন। আর ‘শ্রাবণ নিশি’ গানটির সুর করেছেন অভি আকাশ। আর সংগীতায়োজন মুশফিক লিটুর। এর বাইরেও হয়তো আরো গান ভালোবাসা দিবসে আসতে পারে।

নতুন বছরে বিশেষ কোন পরিকল্পনা রয়েছে?
সত্যি বলতে সবাই চায় নতুন বছরের শুরুটা যেন ভালো হয়। আমিও চাই পুরো বছরটাই যেন সবার জন্য ভালো কাটে। বছরের শুরুতে বেশ কিছু গানের কাজ করেছি। এ গানগুলো বছরের বিভিন্ন সময় হয়তো প্রকাশ হবে। সেদিক থেকে নতুন বছরের শুরুটা ভালো হয়েছে আমার জন্য। তবে আমি কিন্তু পরিকল্পনা করে কিছু করি না। কারণ সময় ও অবস্থাই মানুষকে বলে দেয় কি করতে হবে। তাই তেমন কোন বিশেষ পরিকল্পনা আসলে নেই। তবে ইচ্ছে আছে ভালো কিছু গান করার। অনেক গান করবো সেটা না। মানুষের মনে দাগ কাটে এমন কিছু গান এ বছর করতে চাই। দেখা যাক কি হয়। তাছাড়া পরিবারকে সময় দিতে আমি পছন্দ করি। এটা আমার দ্বায়িত্বের মধ্যে পড়ে। আমার দুই মেয়ে, স্বামী ও সংসারে পর্যাপ্ত সময় দেয়ার চেষ্টা করছি। আর শ্রোতাদের ভালোবাসাতো রয়েছেই।

এখন মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে?
এখন অবস্থা মোটামুটি। যে যার মতো করে গান প্রকাশ করতে পারছেন। বিভিন্ন কোম্পানি বিনিয়োগ করছে। আবার শিল্পীরা নিজেদের ইউটিউব চ্যানেলেও গান প্রকাশ করতে পারছেন। এটা ইতিবাচক দিক। নেতিবাচক দিকও রয়েছে। কিন্তু ইতিবাচক দিকটিকে গ্রহণ করে এগিয়ে যেতে হবে। তাছাড়া ইউটিউবে নিজেদের মেধা প্রকাশেরও সুযোগ পাচ্ছেন অনেক শিল্পী। আমি মনে করি ধীরে ধীরে ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা আরো ভালো হবে। এরসঙ্গে ভালো কথা-সুরের প্রতি মনোযোগ দেয়া দরকার। বিশেষ করে আমি সব সময়ই একটা কথা বলে আসিছ। অবশ্যই ভিডিওর চাইতে অডিওতে বেশি জোর দেয়া উচিত। তাহলেই সে গান টিকে থাকবে।

আপনার পরবর্তীতে যারা এসেছে তাদের গান কেমন লাগে?
আমার পরবর্তীতে অনেকেই এসেছে যাদের মধ্যে মেধা রয়েছে। অনেকে ভালো গান লিখছে, সুর করছে ও গাইছে। এখন যারা কাজ করছেন তাদের অনেকের গানই আমার ভালো লাগে। তারাই সংগীতকে ভালোভাবে সামনে নিয়ে যেতে পারবে বলে আমার বিশ্বাস। আমার মনে হয় আমাদের দেশে মেধার কোন কমতি নেই। শুধু পরিচর্যার অভাব রয়েছে। সেটা হলেই আমার কোন সমস্যা থাকবে না।

এবার ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। সংসার কেমন চলছে?
সংসার বেশ ভালো চলছে। দুই মেয়ে ও স্বামী নিয়ে আমার পরিবার। আমি যেমন তাদের খেয়াল রাখার চেষ্টা করি, তারাও ঠিক তাই। স্বামীতো বটেই, আমার ছোট দুই মেয়ে এখন আমার কেয়ার করে খুব। মা হিসেবে এই অনুভূতি গুলো খুব উপভোগ করি আমি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর