× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার
অস্ট্রেলিয়ান ওপেন

নাদালের বিদায়

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৩০ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৪৯


ম্যাচের আগে আলেকজান্ডার জভরেভ মজা করে বলেছিলেন, ‘এসি রুমে বসে কোকের বোতল নিয়ে আমি ছয় ঘণ্টার একটা লড়াই দেখবো বলে আশা করছি।’ রাফায়েল নাদাল-ডমিনিক টিয়েমের লড়াইয়ের ব্যাপি ৬ ঘণ্টা না হলেও ৪ ঘণ্টা ১০ মিনিট হয়েছে। গতকাল রড লেভার এরেনায় এপিক ব্যাটলে শেষ হাসিটা টিয়েমের। চার সেটের লড়াইয়ে কিংবদন্তি নাদালকে  ৭ (৩), ৬-৭ (৪), ৬-৪, ৬-৭ (৬) গেমে হারিয়ে প্রথমবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের সেমিফাইনালে নাম লেখান টিয়েম। আগামীকাল সেমিফাইনালে অস্ট্রিয়ান এই তারকা লড়বেন জার্মানির আলেকজান্ডার জভরেভের বিপক্ষে। তৃতীয় সেমিফাইনালে সুইজারল্যান্ডের স্তান ভাভরিঙ্কার বিপক্ষে প্রথম সেট হেরেও জভরেভ জেতেন ১-৬, ৬-৩, ৬-৪, ৬-২ গেমে।
২৬ বছর বয়সী টিয়েম এর আগে দুবার ফ্রেঞ্চ ওপেনের ফাইনাল খেলেছেন। তবে এবারই প্রথম ওঠলেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শেষ চারে। ঘাম ঝরানো লড়াইয়ে নাদালকে হারানোর পর তিনি বলেন, ‘আমি কেবল ম্যাচে টিকে থাকতে চেয়েছিলাম। যদিও সবসময় মানসিক অবস্থা একরকম ছিল না।
কিন্তু টাইব্রেকারে সময় নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি। তবে কঠিন মুহূর্তে ভাগ্যও মনে হয় আমার সঙ্গে ছিল। সে (নাদাল) টেনিস কিংবদন্তিদের একজন। তাকে হারাতে আপনাকে ভাগ্যের খানিকটা সহায়তা পেতেই হবে। এখন আমি পরিপূর্ণ সুখী একজন মানুষ।’
ক্যারিয়ারে ১৯ গ্র্যান্ড স্লামের মাত্র একটি নাদাল জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে। সেটাও ১১ বছর আগে। বিদায় নেয়ার পর এই স্প্যানিয়ার্ড বলেন, ওর বিপক্ষে খেলা কঠিন ছিল। তবে আমি পুরো ম্যাচে একবারও হাল ছাড়িনি। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত নিজেকে সুযোগ দিয়েছি আমি। এ নিয়ে আমি খুশি। আমার মনোযোগ, টেনিস দুটোই সেরা লেভেলে ছিল বলে মনে করি আমি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর