× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবর
ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার

কোয়ার্টার ফাইনালে আজ প্রোটিয়াদের মুখোমুখি টাইগার যুবারা

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৩০ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৫২

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে সুপার লীগ কোয়ার্টার ফাইনালের তৃতীয় ম্যাচে আজ স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ২টায়। জিতলে সুপার লীগ সেমিফাইনালে নাম লেখাবেন আকবর আলী-তৌহিদ হৃদয়রা। আজকের ম্যাচে বাংলাদেশ চেয়ে থাকবে হৃদয়-রাকিবুলদের দিকে। রাকিবুল ২ ইনিংসে বল করে হ্যাটট্রিকসহ নিয়েছেন ৫ উইকেট। ৩ ম্যাচে ৭৮ রান নিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মাহমুদুল হাসান জয়। একমাত্র ফিফটির দেখা পেয়েছেন ওপেনার পারভেজ হাসান ইমন। দলের সেরা ব্যাটসম্যান হৃদয়কে গ্রুপ পর্বে বড় কোনো পরীক্ষা দিতে হয়নি।
তিন ম্যাচে দুটিতে ব্যাটিংয়ে নামতে পেরেছেন। একটিতে ১৯ রানে অপরাজিত ছিলেন। আরেকটিতে ৪ রান করে আউট হন। এবারের যুব বিশ্বকাপে অন্যতম ফেভারিট বলা হচ্ছে বাংলাদেশকে। ‘সি’ গ্রুপে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ছিল পাকিস্তান, স্কটল্যান্ড আর জিম্বাবুয়ে। প্রথম ম্যাচেই জিম্বাবুয়েকে ৯ উইকেটে হারায় টাইগার যুবারা। দ্বিতীয় ম্যাচে স্কটল্যান্ডকে গুঁড়িয়ে দেয় মাত্র ৮৯ রানে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে আগে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। সেদিন ব্যাটিংটা একদম ভালো হয়নি। ২৫ ওভারে ৯ উইকেটে ১০৬ রান তোলার পর বৃষ্টিতে খেলা পরিত্যক্ত হয়। তবে রানরেটে এগিয়ে থাকায় গ্রুপসেরা হয়ে সুপার লীগ কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখেন হৃদয়রা। স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার শুরুটা ছিল বাজে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১২৯ রানে গুটিয়ে ৭ উইকেটের হার। দ্বিতীয় ম্যাচে কানাডাকে ১৫০ রানে পরাজিত করে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। তৃতীয় ম্যাচে ডার্কওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে আরব আমিরাতকে ২৩ রানে হারিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়। এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের সেরা ব্যাটসম্যান দক্ষিণ আফ্রিকার ব্রাইস পারসনস। ৩ ম্যাচে একটি করে ফিফটি ও সেঞ্চুরিতে তার সংগ্রহ ২৪৫ রান। বল হাতে আকিল ক্লোট নিয়েছেন ৫ উইকেট। এ দুজন বাংলাদেশের জন্য বিপদের কারণ হতে পারেন আজ।
যুব বিশ্বকাপে এটি প্রোটিয়াদের সঙ্গে টাইগার যুবাদের তৃতীয় সাক্ষাত। আগের দুই দেখায় একটি করে জয় কুড়ায় উভয় দল। আর সবশেষ ৫ লড়াইয়ে ৩টিতে জিতেছে বাংলাদেশ। ২০১৬তে ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৪৩ রানে হারায় বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে আগে ব্যাট করে নাজমুল হোসেন শান্ত’র ফিফটিতে ২৪০/৭ সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাবে প্রোটিয়া যুবারা গুটিয়ে যায় ১৯৭ রানে। ৩টি করে উইকেট নেন মিরাজ-সাইফুদ্দিন। ২০১৮তে পঞ্চম স্থান নির্ধারণী প্লে-অফে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৮ উইকেটে পরাজিত হয় বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের কুইন্সটাউনে আগে ব্যাট করে মাত্র ১৭৮ রান তুলতে পেরেছিল তারা। যেটি ৬৯ বল হাতে রেখে পেরিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। এবারের বাংলাদেশ দল অভিজ্ঞতা আর ম্যাচ জয়ে প্রোটিয়াদের চেয়ে এগিয়ে। পচেফস্ট্রুমে তাই ভালো কিছুর আশা করা যায় আজ। তবে প্রোটিয়া বাঁধা পেরোনোর পর সেমিফাইনাল প্লে-অফে বাংলাদেশের জন্য অপেক্ষা করছে ভারত। ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়রা কোয়ার্টার ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২৩৩ রানের সংগ্রহ নিয়েও জেতে ৭৩ রানে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর