× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার

ডাকঘরে সঞ্চয়ের সুদ হার কমিয়ে অর্ধেক

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০, শুক্রবার, ২:১৪ পূর্বাহ্ন

পোস্ট অফিস বা ডাকঘরে সঞ্চয়ের সুদ হার কমিয়েছে সরকার। প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে ডাকঘরে সঞ্চয় এর মুনাফা। এপ্রিল মাস থেকে ব্যাংক ঋণের সুদ হার এক অংকে নামিয়ে আনার প্রস্তুতি হিসেবে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানা যায়। ইতিমধ্যেই ৬ শতাংশে আমানত সংগ্রহের ঘোষণা দিয়েছে অধিকাংশ ব্যাংক। এই অবস্থায় ডাকঘরে আমানতের সুদহার বেশি হলে ব্যাংকিং খাতে তারল্য সংকটের আশঙ্কা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ সঞ্চয় অধিশাখা থেকে প্রকাশিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পোস্ট অফিস সেভিং ব্যাংক রুল এর ২৯ নম্বর রুল অনুযায়ী সাড়ে ৭ শতাংশ শব্দগুলির পরিবর্তে ৫ শতাংশ শব্দগুলি প্রতিস্থাপিত হবে।

পোস্ট অফিসে সঞ্চয়কৃত ফিক্স ডিপোজিট (এফডিআর) এর এক বছর মেয়াদি আমানতের সুদ নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ শতাংশ। ২ বছর মেয়াদে সাড়ে ৫ এবং ৩ বছর মেয়াদী এফ ডি আরে মুনাফা পাওয়া যাবে ৬ শতাংশ।
খোঁজ নিয়ে জানা যায় এর আগে এক বছর মেয়াদি এফডিআর এর বিপরীতে মুনাফা ছিল ১০ দশমিক ২ শতাংশ, ২ বছর মেয়াদি আমানতের মুনাফা ১০ দশমিক ৭ শতাংশ এবং ৩ বছর মেয়াদি আমানতের মুনাফা ছিল ১১ দশমিক ২৮ শতাংশ।
অন্যদিকে ছয় মাস অন্তর অন্তর মুনাফা তোলা যায় এমন আমানতেও সুদহার পরিবর্তন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে এক বছর মেয়াদি আমানতের সুদ হবে ৪ শতাংশ, ২ বছর মেয়াদি সাড়ে ৪ শতাংশ এবং ৩ বছর মেয়াদি আমানতের সুদ নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ শতাংশ। ইতিপূর্বে এরূপ আমানতের সুদ হার ছিল ৯ শতাংশ, সাড়ে ৯ শতাংশ এবং ১০ শতাংশ।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Bashirahmed
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, ১১:৩৩

ব্যাংক থেকে ৯% ও বেশী সুদে সরকার লোন নিবে আর সাধারন মানুষকে ১১% সুদ দিতে কষ্ট।ব্যাংক থেকে টাকাতো প্রকল্পের, উন্নয়নের কাজের সাথে জড়িতরা ৭০০০ টাকা দামের বালিশে ঘুমাবে।আর বেসরকারী পেনশনভূগীরা মারা যাবে।বড় দু:শ্চিন্তায় ফেলে দিল সরকার সাধারন মানুষকে।

রিপন
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, ৮:৫৮

সুদ একেবারেই তুলে দাও। সুদে অকল্যাণ আর অকল্যাণ। বসে বসে হারাম সুদ খাবার চেয়ে যাহোক একটা কিছু করে খাওয়া ঢের শ্রেয়।

অন্যান্য খবর