× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ৩০ মার্চ ২০২০, সোমবার

করোনা আতঙ্কে সৌদিতে ওমরাহযাত্রী প্রবেশ স্থগিত

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:৫৫

করোনা ভাইরাস আতঙ্কে সৌদি আরবে ওমরাহ যাত্রী ও পর্যটক প্রবেশ স্থগিত করেছে দেশটির সরকার। শুধু তাই নয়, মক্কায় আনুষ্ঠানিকতার আগে বা পরে মদিনায় মসজিদে নববীতে প্রবেশও  আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। সৌদি আরবের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ সিদ্ধান্তের কথা জানায়। এ খবর  দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। কোন কোন দেশের মানুষ এর আওতায় পড়বেন তা পরিষ্কার করে বলা হয় নি।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাগে গত দুই মাসে অন্তত ২ হাজার ৮০০ মানুষের প্রাণ গেছে। এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে অ্যান্টার্কটিকা ছাড়া সব মহাদেশে। আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ৭০০ ছাড়িয়ে গেছে। সৌদি আরবে এখনও এ ভাইরাসের সংক্রমণ না ঘটলেও ইরানে ইতিমধ্যে ১৯ জনের মৃত্যু ঘটেছে এবং মধ্যপ্রাচের বেশ কিছু দেশে গত কয়েক দিনে আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মিলেছে।


সৌদি আরবে রয়েছে ইসলামের সবচেয়ে দুই পবিত্র স্থাপনা পবিত্র মক্কা ও মদিনা। এ দুটি স্থানে প্রতি বছর হজ মৌসুমে লাখ লাখ মানুষ পবিত্র হজ পালন করতে যান। এর বাইরে ওমরাহ পালন করতে যান আরো বহু মুসলিম। তবে গত অক্টোবরে ৪৯টি দেশের জন্য সেখানে নতুন পর্যটন বিষয়ক ভিসা চালু করা হয়েছে। এখন চীনের করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় ওমরাহ হজ ও পর্যটন খাতে আক্রান্ত দেশগুলো থেকে কাউকে প্রবেশে আপাতত স্থগিতাদেশ দিয়েছে সৌদি আরব। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই স্থগিতাদেশ অস্থায়ী। তবে তা কবে নাগাদ প্রত্যাহার করা হবে সে সম্পর্কে বিবৃতিতে কিছু বলা নেই। এ বছর জুলাই মাসের শেষের দিকে পবিত্র হজ পালিত হওয়ার কথা। কিন্তু এই স্থগিতাদেশের কারণে পবিত্র হজ প্রভাবিত হবে কিনা তাও এখন নিশ্চিত নয়। পাশাপাশি মদিনায় মসজিদে নববীতেও পর্যটক প্রবেশে স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে।

আরব নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সৌদি আরব সরকার ইতিমধ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে, তার অংশ হিসেবেই ওমরাহযাত্রীদের ওপর এই কড়াকড়ি। যেসব দেশে করোনাভাইরাস ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে, সেসব দেশের নাগরিকদের টুরিস্ট ভিসাও দেওয়া হবে না। পাশাপাশি উপসাগরীয় সহযোগিতা কাউন্সিলভুক্ত (জিসিসি) দেশগুলোতে বসবাসরত সৌদি নাগরিকরা এতদিন জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করেই নিজেদের দেশে যাওয়া আসা করার সুযোগ পেতেন। তাদের সেই সুযোগও আপাতত স্থগিত থাকবে। উল্লেখ্য, গত অক্টোবরে চালু করা পর্যটন ভিসার অধীনে এ সপ্তাহে সৌদি আরব ৪ লাখ ভিসা ইস্যু করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, ১০:২৫

Good decision. Safety first.

অন্যান্য খবর