× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ২৯ মার্চ ২০২০, রবিবার

করোনায় আক্রান্ত ইতালিয়ান ফুটবল গ্রেট

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ২৩ মার্চ ২০২০, সোমবার, ৮:১৪

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন ইতালি ও এসি মিলানের কিংবদন্তির ফুটবলার পাওলো মালদিনি। আক্রান্ত তার পুত্র দানিয়েল মালদিনিও। শনিবার এসি মিলান ক্লাবের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গত দুই সপ্তাহ ধরেই আইসোলেশনে ছিলেন মালদিনি। তবে কিছুদিন আগে করোনায় আক্রান্ত একজনের সংস্পর্শে এসেছিলেন তিনি। তাই তিনি ও তার ছেলে দ্রুত করোনা পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেন। তাদের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। পুরোপুরি সুস্থ না হওয়া পর্যন্ত তারা কোয়ারেন্টিনে থাকবেন, তাদের চিকিৎসা চলছে।’
৫১ বছর বয়সী মালদিনি এসি মিলানের টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের দায়িত্বে রয়েছেন। তার ছেলে বাবা-দাদার মতো খেলছেন মিলানের জার্সি গায়ে।
এই মৌসুমেই সিনিয়র দলে অভিষেক হয়েছে ১৮ বছর বয়সী দানিয়েলের।
সর্বকালের সেরা ডিফেন্ডারদের একজন পাওলো মালদিনি। নিজের সময় ছিলেন বিশ্বসেরা ডিফেন্ডার। কারও কারও মতে, ফুটবল ইতিহাসে সর্বকালের সেরা ডিফেন্ডার তিনি। ইতালির হয়ে তিনি বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ২৩ ম্যাচ খেলেছেন। বিশ্বকাপে তার খেলা ২২১৬ মিনিটও রেকর্ড। জাতীয় দলে খেলেছেন প্রায় দেড় যুগ। ২০০৯ সালে ফুটবল জীবনকে বিদায় জানানোর আগে ক্লাব ক্যারিয়ারের পুরোটাই কাটান এসি মিলানে। সুদীর্ঘ ২৫ বছর মাঠ দাপিয়ে জেতেন সাতটি সিরি আ ও পাঁচটি উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগসহ ২৪টি শিরোপা। পাওলোর বাবা কোচ সিজার মালদিনির অধীনে ১৯৯৮ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছে ইতালি। সেবার ইতালির অধিনায়ক ছিলেন পাওলো মালদিনি। কোয়ার্টার ফাইনালে টাইব্রেকারে দিদিয়ের দেশম-জিনেদিন জিদানের ফ্রান্সের কাছে হার দেখে তারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর