× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৩০ অক্টোবর ২০২০, শুক্রবার

তিন লাখ ছাড়িয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা মৃত ১৩ হাজার

শেষের পাতা

মানবজমিন ডেস্ক | ২৩ মার্চ ২০২০, সোমবার, ৮:৫৯

বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণের হার প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। উৎপত্তিস্থল চীন গত এক সপ্তাহ ধরে সংক্রমণ শূন্যে নিয়ে আসলেও এর বাইরে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে সংক্রমণ। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও ইতালিতে শনিবার একদিনেই মারা গেছেন প্রায় ৮০০ মানুষ। এটি করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। এর ফলে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০০০। ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩,৫৭৮ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সব থেকে বেশি মৃত্যু ইতালিতেই।
রোববার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনায় মারা গেছেন ১৩,০২৮ জন।
আক্রান্ত হয়েছেন তিন লক্ষাধিক মানুষ। মৃতের হার ৪.১%। আফ্রিকার অল্প কয়েকটি রাষ্ট্র বাদে এ ভাইরাস ছড়িয়েছে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই। তবে সব থেকে ভয়াবহ অবস্থা ইউরোপ, চীন, ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের।
দক্ষিণ এশিয়ায় করোনা সব থেকে ভয়াবহ আঘাত হেনেছে পাকিস্তানে। দেশটিতে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ৬৪৫ জন। মারা গেছে কমপক্ষে ৪ জন। তবে অর্থনৈতিকভাবে ধুঁকতে থাকা দেশটি এখনো লকডাউনের ঘোষণা থেকে দূরে রয়েছে। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান লকডাউনের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে জানিয়েছেন, লকডাউন করা হলে করোনা নয়, না খেয়ে মানুষ মারা যাবে। অপরদিকে প্রতিবেশী ভারতে করোনা আক্রান্ত বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৩২ জনে। দেশটিতে মারা গেছে কমপক্ষে ৫ জন। রোববার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে জনতা কারফিউ পালন করেছে ভারতীয়রা। এদিনই দেশজুড়ে বেশকিছু জেলা লকডাউনের ঘোষণা আসে। দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোর মধ্যে শ্রীলঙ্কায় ৭৭ জন করোনা রোগী চিহ্নিত হয়েছে। বাংলাদেশে মোট আক্রান্ত ২৭ ও মারা গেছেন ২ জন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর