× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২০, শনিবার

করোনা মোকাবিলায় টাইগারদের আর্থিক অনুদান

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২৫ মার্চ ২০২০, বুধবার, ১:১১

বিভিন্ন দেশের ক্রীড়াবিদরা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছেন। এবার সেই লড়াইয়ে যোগ দিলেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররাও। করোনা প্রতিরোধে তহবিল গঠনের উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ১৭ ক্রিকেটার চলতি মাসের বেতনের ৫০ শতাংশ দান করছেন তহবিলে। চুক্তির বাইরে যে ১০ ক্রিকেটার গত তিন মাসে নিয়মিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন তারাও ৫০ শতাংশ দিচ্ছেন এই তহবিলে। মাশরাফি বিন মুর্তজা কেন্দ্রীয় চুক্তিতে নেই। কিন্তু মার্চ মাসে তিনি ওয়ানডে খেলেছেন। প্রাপ্য গ্রেড অনুযায়ী চলতি মাসে তিনি পাবেন ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকা।
অর্ধেক বেতন ২ লাখ ১২ হাজার টাকা দিচ্ছেন তিনি করোনা তহবিলে।
২৭ ক্রিকেটার মোট ৩১ লাখ টাকার তহবিলে দান করছেন। এ টাকাটা সরকারের কোন প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হবে সেটি এখনো ঠিক করা হয়নি। তহবিল গঠনের অন্যতম উদ্যোক্তা তামিম ইকবাল সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘যাদের সামর্থ্য গঠনের আছে, সবার জায়গা থেকে কিছু কিছু সহায়তা করলে এ লড়াইয়ে জেতা সম্ভব। এটা এখন করা দরকারও। টাকাটা আমরা কোথায় দেব, সেটি এখনো ঠিক করিনি। আগে পুরো টাকাটা হাতে পেয়ে নিই, তারপর যেটা সঠিক সেটাই করা হবে।'

তহবিল নিয়ে ফেসবুকে এক দীর্ঘ স্ট্যাটাসে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীম লিখেছেন, ‘আসসালামুআলাইকুম। আপনারা সবাই জানেন করোনাভাইরাসের সংক্রমণে চারদিকে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯ রোগ। এই রোগ প্রতিরোধে কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশও ব্যতিক্রম নয়। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে যার যার জায়গা থেকে।
সেটির অংশ হিসেবে আমরা ক্রিকেটাররা একটা উদ্যোগ নিতে যাচ্ছি, যেটি হয়তো অনুপ্রাণিত করতে পারে আপনাদেরও। আমরা এই মাসের বেতনের ৫০ শতাংশ দিয়ে একটা তহবিল গঠন করেছি। এই তহবিল ব্যয় হবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণে আক্রান্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত ও সাধারণ মানুষ যাদের গৃহবন্দি অবস্থায় জীবন চালিয়ে নিতে অনেক কষ্ট হয়।
তহবিলে জমা পড়েছে প্রায় ৩০ লাখ টাকার মতো। কর কেটে থাকবে ২৬ লাখ টাকা। করোনার বিরুদ্ধে জিততে হলে আমাদের এই উদ্যোগ হয়তো যথেষ্ট নয়। কিন্তু যাদের সামর্থ্য আছে সবাই যদি এক সঙ্গে এগিয়ে আসেন কিংবা ১০জনও যদিও এগিয়ে আসেন, এই লড়াইয়ে আমরা অনেক এগিয়ে যাব। হ্যাঁ, এরই মধ্যে করোনা মোকাবিলায় অনেকে এগিয়ে এসেছেন। তাদের অবশ্যই সাধুবাদ জানাই। কিন্তু বৃহৎ পরিসরে যদি আরও অনেকে এগিয়ে আসে, তাহলে আমরা এই লড়াইয়ে জিততে পারব ইনশাআল্লাহ। সেই সহায়তা হতে পারে ১০০, ৫০০০ কিংবা ১ লাখ টাকা দিয়ে। টাকা দিয়ে না হোক হতে পারে দুস্থ মানুষকে খাবার কিনে দিয়ে। আসুন পুরো দেশকে আমরা একটা পরিবার ভেবে চিন্তা করি এবং এই বিপদে সবাই সবাইকে সহায়তা করি। আল্লাহ আমাদের নিশ্চয়ই রক্ষা করবেন। ইনশাআল্লাহ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর