× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ৪ এপ্রিল ২০২০, শনিবার

যশোরে শ্বাসকষ্টে বৃদ্ধের মৃত্যু

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে | ২৭ মার্চ ২০২০, শুক্রবার, ৭:৪৭

ভারতের বোম্বে থেকে ফেরা পরিবারের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ও স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধিরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। যশোর শার্শা বেনাপোলে বিভিন্ন দেশসহ ভারত থেকে ফেরা নাগরিকরা প্রকাশ্যে চলাচল করায় করোনা আতংক ও ঝুঁকি বাড়ছে। তবে সচেতন হয়েছেন স্থানীয়রা। বেনাপোল কাগজপুকুর গ্রামের আব্দুল গনির ছেলে ওজিহার (৬৫) বুধবার রাতে নিজ বাড়িতে শ্বাসকষ্টে মারা যান। তার দুই পুত্র ও এক কন্যা ৬দিন আগে ভারতের বোম্বে থেকে ফেরেন। কোয়ারেন্টিন মানেনি তারা। তাদের বাড়িতে দেয়া হয়নি লাল পতাকা।
বৃদ্ধের মৃত্যুর দিন সকালে সাঁটানো হয়েছে লাল পতাকা। এ নিয়ে স্থানীয়দের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়েছে। জনপ্রতিনিধি ও সমাজের মানুষ সহযোগিতা করলে সবাইকে কোয়ারেন্টিনে আনা সম্ভব হবে। কমবে ঝুঁকি ও আতংক। তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা গ্রাম পুলিশ দিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছে । নির্দেশনা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যানরা।
বৃদ্ধের মৃত্যুর ঘটনাটি স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসনের জানানো হয়েছে। তবে তার মৃত্যু রাতে হলে সংবাদ পাওয়া গেছে সকালে বিষয়টি গ্রামবাসীকে নানা প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে বলে জানান, স্থানীয় কাউন্সিলর আমিরুল ইসলাম। তিনি আরো জানান, বৃদ্ধ শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন অনেক দিন। ১৫ দিন আগে তার হার্ট অ্যাটাক হয় বলে জানান তিনি। তবে স্বজনদের দাবি ওজিহার বেশকিছু দিন ধরে অসুস্থ্য ছিলো। তার মেয়ে ও ছেলেরা ভারত থেকে ফিরেছে ৬দিন আগে। তার স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি পরিবারের।

স্থানীয় ডাক্তার ইদ্রিস আলী জানান, তার এ্যাজমা ও শ্বাসকষ্ট ছিলো অনেকদিক আগেই। গতকাল রাতে হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়লে লো-প্রেসারের প্রাথমিক চিকিৎসা দেন তিনি। পরে বাড়িতে মারা যায় ওজিহার।বেনাপোল চেকপোস্ট স্বাস্থ্য পরিচর্য্যা কেন্দ্র ডা. শুভংক কুমার মন্ডল জানান, বার্ধক্যজনিত রোগে মৃত্যু হয়েছে তার। করোনার কোন আলামত পায়নি তারা। প্রশাসনের সিদ্ধান্তে দাফন করা হবে বলে জানান তিনি। বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি মামনু খান বলেন, মৃত্যুর খবর শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর