× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেট
ঢাকা, ৩১ মার্চ ২০২০, মঙ্গলবার

করোনা নিয়ে টিভিতে অপপ্রচার মনিটরিংয়ে ১৫ কর্মকর্তা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ২৬ মার্চ ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:৫২

বেসরকারি টিভি চ্যানেলগুলোতে সম্প্রচারিত কোভিড-১৯ বা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বিষয়ে অপপ্রচার কিংবা গুজব প্রচার হচ্ছে কি না, তা মনিটরিং করছে সরকার। এ জন্য ৩০টি চ্যানেল মনিটরিং করার জন্য ১৫ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়েছে তথ্য মন্ত্রণালয়। দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাদের প্রতিজন ২টি করে চ্যানেল মনিটরিং করবেন বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নাসরিন পারভীনের সই করা এক আদেশে এ দায়িত্ব দেয়া হয়। জানতে চাইলে তথ্য মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এ দায়িত্ব দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। দায়িত্ব পাওয়া সবাই তথ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা। ২৪ মার্চ অনুষ্ঠিত করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিহতকরণে প্রচার-প্রচারণাসংক্রান্ত কমিটির প্রথম সভার সিদ্ধান্তের আলোকে এটি করা হয়েছে বলে আদেশে বলা হয়। দায়িত্ব পাওয়া কর্মকর্তারা কোনো বেসরকারি টিভি চ্যানেলে করোনাভাইরাস সম্পর্কে অপপ্রচার কিংবা গুজব প্রচার করা হচ্ছে বলে চিহ্নিত করলে, সেই গুজব ও অপপ্রচার বন্ধের জন্য সঙ্গে সঙ্গে মন্ত্রণালয় কর্তৃপক্ষকে জানাবেন।
এদিকে সরকারি এ সিদ্ধান্তে অসন্তোষ প্রকাশ করছেন গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টরা। এটিএন নিজউজের হেড অব নিউজ প্রভাষ আমীন এক ফেসবুক প্রতিক্রিয়ায় লিখেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক গুজব ছড়ানো হচ্ছে বটে, তবে কোনো গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে অপপ্রচার বা গুজবের অভিযোগ ওঠেনি এখনও। কিন্তু সরকার টিভি চ্যানেলগুলো মনিটর করার উদ্যোগ নিয়েছে। ১৫ জন উপসচিবকে দুটি করে মোট ৩০টি চ্যানেল। মনিটর করতে বলা হয়েছে। অপপ্রচার বা গুজব চিহ্নিত করলে তারা তা বন্ধ করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবে। কিন্তু প্রশ্ন হলো, কোনটা প্রচার কোনটা অপপ্রচার; কোনটা নিউজ কোনটা গুজব; তা এই উপসচিবরা কী দিয়ে মাপবেন? উপসচিবরা যদি টেলিভিশন নিউজ মনিটর করে তাহলে আর সাংবাদিকতার কী দরকার?

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর