× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩০ মে ২০২০, শনিবার

দিশেহারা ভারত হাতড়ে বেড়াচ্ছে নানা ধরণের ওষুধ

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৮ মে ২০২০, শুক্রবার, ১০:৩৬

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫০ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। সংক্রমণের হারে ভারত বিশ্বে দশম স্থানে পৌঁছে গিয়েছে। হাসপাতালগুলিতে ভর্তি রয়েছেন হাজার হাজার করোনা আক্রান্ত রোগী। অথচ এখনো প্রতিষেধকের দেখা নেই। তাই দিশেহারা ভারত হাতড়ে বেড়াচ্ছে নানা ধরণের ওষুধ। এসব ওষুধে করোনা চিকিৎসায় পরীক্ষার অনুমতি দেয়া হয়েছে। এমনকি কোভিড চিকিৎসায় হোমিওপ্যাথি ওষুধ প্রয়োগেরও অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে গঙ্গার পানি দিয়ে করোনা চিকিৎসার একটি প্রস্তাবকে বাতিল করে দেয়া হয়েছে।
করোনা চিকিৎসা কোন পথে হবে তা ঠিক করার দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সংস্থা আইসিএমআর করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন চিকিৎসায় কার্যকর একাধিক ওষুধকে পরীক্ষামূলক ব্যবহারের বিস্তারিত নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, এইচআইভি চিকিৎসার জন্য ব্যবহৃত লোপিনাভির/রিটোনাভির নির্দিষ্ট ডোজের ওষুধ করোনা চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে। কোন ধরণের কোভিড রোগীকে এই ওষুধ প্রয়োগ করা হবে তাও জানানো হয়েছে। এছাড়া রেমডেসিভির (এবোলা চিকিৎসার জন্য উদ্ভাবিত) সহ প্রায় এক ডজন ওষুধকে কোভিড চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য আইসিএমআর নির্দিষ্ট করেছে। এই তালিকায় রয়েছে, কুষ্ঠ রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত মাইকোব্যাক্টেরিয়াম ডাব্লু, সোরিয়াসিস রোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ইটোলিজুমাব, আর্থাইরাইটিস রোগে ব্যবহৃত টোসিলিজুমাব, ডায়েরিয়ার জন্য ব্যবহৃত লোপারমাইড ও এলকোহল আসক্তদের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ডিসালফিরাম ওষুধ। আইসিএমআর অবশ্য করোনা চিকিৎসার জন্য কার্যকর কোনও ওষুধের কথা এখনও পর্যন্ত ঘোষণা করেনি। তবে ভারতের কেন্দ্রীয় হোমিওপ্যাথিক কাউন্সিল করোনার ক্ষেত্রে একটি হোমিওপ্যাথি ওষুধ প্রয়োগের অনুমতি দিয়েছে। সেই মত কলকাতার দুটি হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা ঠেকাতে আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ বিতরণ শুরু করেছে। প্রায় এক লাখ এই ওষুধ তারা মানুষের মধ্যে বিলি করছেন বলে জানিয়েছেন ডি এন দে হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. শ্যামল কুমার মুখার্জি। এদিকে, করোনা আক্রান্তের চিকিৎসায় গঙ্গার পানি ব্যবহারের প্রস্তাব ভারত সরকারকে দিয়েছিল গঙ্গা সাফাই অভিযানের সঙ্গে যুক্ত এক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে পানিশক্তি মন্ত্রক ঘুরে সেই প্রস্তাব আইসিএমআর-র কাছে আসা মাত্র তা বাতিল করে দেয়া হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর