× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১ জুন ২০২০, সোমবার

দুস্থদের জন্য সহায়তা চাওয়ার সময় কষ্টের শৈশব স্মৃতি মনে পড়লো ম্যারাডোনার

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৯ মে ২০২০, মঙ্গলবার, ১২:৩৮

অভাবীদের জন্য খাদ্য চাইতে গিয়ে কাঁদলেন দিয়েগো ম্যারাডোনা। ভক্তদের জানালেন তার কঠিন শৈশবের কথা। আর্জেন্টাইন এই ফুটবল কিংবদন্তি ‘কোরাজোনেস সলিডারিওস’ নামে একটি সংস্থার সঙ্গে কাজ করছেন। যারা করোনায় দুস্থ-অসহায় মানুষদের খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে।
ম্যারাডোনার শৈশব খুব দুঃখে কেটেছে। আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্সের ভিলা ফিওরিতোর এক দরিদ্র পরিবারে তার জন্ম। বাল্যকালে বয়সের তুলনায় ম্যারাডোনার ওজন ছিল কম। তিনি কোকেইনে আসক্ত ছিলেন। এমন অসংখ্য প্রতিবন্ধকতা কাটিয়ে ফুটবলে উত্থান।
এরপর বিশ্বটাকেই জয় করে নিলেন পায়ের জাদুতে। জিতলেন ১৯৮৬ বিশ্বকাপ।

ম্যারাডোনার এখন কোনো কিছুর কমতি নেই। বুয়েন্স আয়ার্সে গলফ ক্লাবের কাছে এক প্রাইভেট এস্টেটে লকডাউনে সময় কাটছে তার। তবে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে বসে দেশের দুস্থ মানুষের কষ্টটা বুঝতে পারছেন ম্যারাডোনা।
ইনস্টাগ্রাম এক ভিডিও বার্তায় এসে ম্যারাডোনা বলেছেন, ‘কোরাজোনেস সলিডারিওসের প্রতি আমার ভালোবাসা। অভাবীদের খাদ্য দিতে সহায়তা করুন। এটা কোনো প্রদর্শনী নয়। ফিওরিতোতে শীতে ছাড়াও অনেক ভুগেছি আমি।’
৫৯ বছর বয়সী ম্যারাডোনা চলতি মৌসুমে আর্জেন্টাইন ক্লাব জিমনাসিয়া দে লা প্লাতার কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। করোনার কারণে আর্জেন্টিনার শীর্ষ লীগের বাকি ম্যাচ বাতিল করেছে। তবে কোনো অবনমন না থাকায় পয়েন্ট তালিকায় তলানিতে থেকেও বেঁচে গেছে জিমনাসিয়া।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর