× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৭ জুন ২০২০, রবিবার

নবীগঞ্জে সংঘর্ষ নিহত ১

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, নবীগঞ্জ থেকে | ২০ মে ২০২০, বুধবার, ১১:৫৮

পাওনা টাকা নিয়ে সংঘর্ষে ১ জন নিহত হয়েছেন। অপর ১ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। উপজেলার দেওপাড়া গ্রামে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে সৈয়দ আলী (৬০) নামের এক বৃদ্ধ নিহত হন। গত সোমবার রাতে গজনাইপুর ইউনিয়নের দেওপাড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সৈয়দ আলী (৬০) দেওপাড়া গ্রামের মৃত রাহাত উল্ল্যাহর পুত্র। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। এ খবর নিশ্চিত করেন থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার দেওপাড়া গ্রামের সৈয়দ আলীর পুত্র সুমন মিয়া একই গ্রামের মৃত মতিন মিয়ার পুত্র রুবেল মিয়ার কাছে ৫০০ টাকা পান। গত সোমবার ইফতারের পূর্ব মুহূর্তে  রুবেলের কাছে ওই পাওনা টাকা ফেরত চান সুমন মিয়া। এনিয়ে  সুমন ও রুবেলের মধ্যে বাকবিত-া হয়। পরে স্থানীয় মুরব্বিরা পরিস্থিতি শান্ত করে ইফতারের পর বিষয়টি মীমাংসার আশ্বাস দেন। ইফতার শেষে স্থানীয় দেওপাড়া বাজারে  বিষয়টি মীমাংসায় বসেন। এ সময় সৈয়দ আলী, তার পুত্র সুমন মিয়াসহ আত্মীয়-স্বজন এবং রুবেল মিয়ার আত্মীয়-স্বজন উপস্থিত ছিলেন।  বৈঠক শুরু হওয়ার একপর্যায়ে হঠাৎ করে রুবেল ও তার লোকজন সুমনের পিতা সৈয়দ আলী ও চাচা আনছব আলীর ওপর হামলা চালায়। এ সময় রুবেল তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে সৈয়দ আলী ও আনছব আলীকে আঘাত করে। গুরুতর অবস্থায় আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সৈয়দ আলীকে মৃত ঘোষণা করেন এবং অপর আহত আনছব আলীকে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজিজুর রহমানের নেতৃত্বে গোপলার বাজার তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ কাওছার আলমসহ এক দল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।  এ ঘটনায় পুলিশ রুবেল মিয়াসহ ২ জনকে বাহুবল থানা পুলিশের সহযোগিতায় আটক করে। এ নিয়ে থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনার মূল হোতা রুবেলসহ ২ জনকে আটক করা হয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর