× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৭ জুন ২০২০, রবিবার

দোহার-নবাবগঞ্জের ৬১০০০ পরিবার পেলো সালমান এফ রহমানের সহায়তা

শেষের পাতা

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি | ২০ মে ২০২০, বুধবার, ১১:৫৮

করোনায় কর্মহীন ও অসহায় দোহার-নবাবগঞ্জবাসীর পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা, ঢাকা-১ আসনের সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান। দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলায় পর্যায়ক্রমে ৬১ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে ফজলুর রহমান ফাউন্ডেশন। সরকারি বরাদ্দ চাল ছাড়াও সালমান এফ রহমানের নিজস্ব অর্থায়নে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী রয়েছে। এতে করে এ উপজেলার কর্মহীন, অভাবগ্রস্ত, দুস্থ, অসহায়, ও হতদরিদ্র মানুষ খাদ্য সহায়তা পাচ্ছেন। নবাবগঞ্জ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ২৮ হাজার এবং দোহার উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ১টি পৌরসভায় ৩৩ হাজার পরিবারকে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, ঈদ উপহার সামগ্রী ৮ হাজার পরিবার এবং শিশু খাদ্য ৫৫০০ পরিবারকে বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। নবাবগঞ্জ উপজেলার ৯৮১০টি পরিবার এবং দোহারে ৮৮৮৫টি পরিবার প্রধানমন্ত্রীর নগদ আর্থিক সুবিধার আওতায় এসেছেন। এর ফলে মানুষের মাঝে দুর্ভোগ বহুলাংশে লাঘব হবে। তালিকায় রিকশাচালক, ভ্যানচালক, দিনমজুর, নির্মাণ শ্রমিক, কৃষি শ্রমিক, দোকানের কর্মচারী, ব্যক্তি উদ্যোগে পরিচালিত বিভিন্ন ব্যবসায় কর্মরত শ্রমিক, পোল্ট্রি খামারের শ্রমিক, বাস-ট্রাকসহ পরিবহন শ্রমিক, হকারসহ নানা পেশার মানুষকে রাখা হয়েছে।
এ ব্যাপারে কলাকোপা ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইব্রাহীম খলিল জানান, আমরা সালমান এফ রহমান এমপির মতো কীর্তিমান মানুষ পেয়ে নিজেদের খুবই ভাগ্যবান মনে করছি। দেশবরেণ্য শিল্পপতি হয়েও তিনি জন্মস্থানকে ভুলে যাননি। যেকোন বিপদেই আমরা তাদের পাশে পেয়েছি। আমি কলাকোপা তথা নবাবগঞ্জবাসীর পক্ষ হতে তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। দোহার উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আফরোজা আক্তার রিবা জানান, দোহার নবাবগঞ্জ উপজেলার অভিভাবক ঢাকা-১ আসনের সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমান স্যারের দিকনির্দেশনায় অসহায় দোহারবাসীর পাশে থেকে সার্বিক সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। সরকারি ত্রাণের চাল ছাড়াও এমপি মহোদয়ের নিজস্ব অর্থায়নে ৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ৩৩ হাজার অসহায় পরিবারকে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত আছে ।  ঈদ উপহার হিসাবে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী প্রায় ৮ হাজার পরিবারকে দেয়া হয়েছে। শিশু খাদ্য ৫৫০০ পরিবারকে দেয়া হয়েছে এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অসহায়দের নগদ আর্থিক সুবিধার আওতায় ৮৮৮৫টি পরিবার পাবেন। সাহায্য সহযোগিতা যেভাবে চলমান রয়েছে তাতে করে দোহারে খাদ্য ও মানবিক সমস্যা হবে না ।
নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দীন মনজু বলেন, এ উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের ১২৬টি ওয়ার্ডে ২৮ হাজার পরিবারকে সরকারি ত্রাণের চাল ছাড়া এমপি মহোদয়ের আর্থিক সহযোগিতায় বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর নগদ আর্থিক সুবিধার আওতায় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার ৯ হাজার ৮১০টি পরিবার এ সুবিধা পাবেন। বিশেষ নজরদারি নিখুঁতভাবে যাচাই বাছাই করে নামের তালিকা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এবং প্রকৃত যারা প্রাপ্য তারা যেন তালিকা থেকে বাদ না পড়ে সেদিকে বিশেষ নজর রাখা হয়েছে। সাহায্য সহযোগিতা যেভাবে অব্যাহত আছে আশা করি মানুষের দুর্দশা অনেকাংশ লাঘব হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Rejaul karim
২০ মে ২০২০, বুধবার, ৭:১৩

sir, i need a job. i have completed MBA in Accounting . Now i am unemployment . i can,t support my family member . cell no 01767620895

অন্যান্য খবর