× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার

রাঙ্গাবালীতে আম্পানে শতাধিক বাড়িঘর বিধ্বস্ত

বাংলারজমিন

রাঙ্গাবালী (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি | ২১ মে ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৪:৩৩

ঘূর্ণিঝড় আম্পানের তান্ডবে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় শতাধিক বাড়ি-ঘর ও একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিধ্বস্ত হয়েছে। বুধবার সন্ধায় ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানলে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বাড়ি-ঘর ও টুঙ্গীবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় বিধ্বস্ত হয়। এর আগে বুধবার দুপুরে অরক্ষিত বেঁড়িবাধ দিয়ে পানি ডুকে রাঙ্গাবালী সদর ইউনিয়নের চরকাশেম, মাঝের চর,  চরমোন্তাজ ইউনিয়নের চরআন্ডা, চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের বিবির হাওলা, গরুভাঙ্গা, মধ্য চালিতাবুনিয়া, উত্তর চালিতাবুনিয়া ও লতার চর সহ ৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়।  এছাড়াও চরাঞ্চলের অর্ধশতাধিক মাছের ঘের ও পুকুর তলিয়ে গেছে। এতে মৎস ব্যাবসায়ীরা বিপাকে পরেছেন। রাঙ্গাবালী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো.হুমায়ুন কবির জানান, আম্পানের তান্ডবে রাঙ্গাবালী উপজেলায় মোট ১২৪০ টি বাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৩৪০ টি সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত ও ৯০০টি বাড়ি আংশিক বিধ্বস্ত হয়েছে। রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.মাশফাকুর রহমান জানান, আম্পানে যাতে বড় ধরণের ক্ষতি না হয় এ কারণে আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষথেকে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহন করেছিল। নি¤œাঞ্চলের সকল মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছিল।
যার ফলে হতাহতের কোন ঘটনা ঘটেনি। তবে ঘূর্ণিঝড়ে যাদের বাড়ি-ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তাদের তালিকা করা হচ্ছে। যত দ্রুত সম্ভব সহায়তা প্রদান করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর