× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩০ মে ২০২০, শনিবার

ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে দৌলতপুরে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

বাংলারজমিন

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি | ২২ মে ২০২০, শুক্রবার, ৫:৩৪

ঘুর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ঘর-বাড়ি লণ্ডভণ্ড সহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বিধ্বস্ত হয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ কয়েক’শ বাড়িঘর। উপড়ে পড়েছে বহু গাছপালা। উঠতি বোরো ফসলেরও ক্ষতি হয়েছে ব্যাপক। বিদ্যুতের তার ছিড়ে  দৌলতপুরের অধিকাংশ এলাকা বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ রয়েছে। ঘূর্নিঝড় আম্ফানের তা-বলীলা দৌলতপুর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামেই চালিয়েছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলের ফসলের মাঠের উঠতি বোরো ধান, পাট ও পানবরজ নষ্ট হয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে কৃষকদের। ফলের বাগানে আম, কাঠাল, লিচু, কলা ও পেপে বাগান উপড়ে পড়ে ও ভেঙ্গে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
গাছপালা ভেঙ্গে ও উপড়ে পড়ে ফলচাষীদের মাথায় হাত পড়েছে। ফিলিপনগরের ইসলামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ বিধ্বস্থ হয়েছে চরাঞ্চলের বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও কয়েকশত কাঁচাপাকা ঘরবাড়ি এবং বিভিন্ন স্থপনা। বিভিন্ন সড়কে গাছ উপড়ে পড়ে গ্রামাঞ্চলের অনেক সড়কে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এদিকে দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন, দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার ও দৌলতপুর কৃষি অফিসার এ কে এম কামরুজ্জামান বৃহস্পতিবার দৌলতপুরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখেছেন। দৌলতপুর কৃষি অফিসার এ কে এম কামরুজ্জামান জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের আঘাতে  দৌলতপুরে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বোরো ধানসহ সবধরণের ফসলের ক্ষতি হয়েছে। বিভিন্ন ফলের বাগানের ফল ঝরে পড়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের বিষয়ে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। কৃষি বান্ধব সরকার ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের প্রতি যথেষ্ট আন্তরিক রয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর