× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩০ মে ২০২০, শনিবার

ঘাটাইলে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে ত্রাণ ও ঈদ উপহার সামগ্রী  বিতরণ

বাংলারজমিন

ঘাটাইল ( টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | ২২ মে ২০২০, শুক্রবার, ৭:২৭

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ও সংকটকালীন সময়ে অতি দরিদ্র এ সব প্রতিবন্ধী, কর্মহীন ও অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের মধ্যে আজ শুক্রবার (২২ শে মে) ত্রান ও ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। উপজেলার ২ নং ঘাটাইল সদর ইউনিয়নের শাহাপুর অটিষ্টিক ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে সেমাই, চিনি,দুধ,মুরগি চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ, সাবান সহ প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি বিতরন করেন অত্র বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামান ( রানা)। তার ব্যক্তিগত উদ্যোগে দেড় শতাধিক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এসব ত্রান ও ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্হিত ছিলেন টাঙ্গাইল-৩, ঘাটাইল আসনের সাবেক এম,পি আলহাজ্ব আমানুর রহমান খান( রানা)। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন ২নং ঘাটাইল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ হায়দর আলী, উক্ত প্রতিষ্ঠানের সভাপতি মোঃ কামরুজ্জামান ( রানা), সকল শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবক বৃন্দ। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আমানুর রহমান খান রানা বলেন, যখনি এ সব অসহায় প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের কথা মনে হয় তখন আর ঘরে মন টিকে না। সব কিছু ফেলে এদের পাশে এসে দাঁড়ালে তৃপ্তি লাগে মনে শান্তি পাই।আমি কথা দিতে পারি ঘাটাইলে যদি কোন স্কুল সরকারী হয় তাহলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আমার বাবা বর্তমান আপনাদের ভোটে নির্বাচিত এম,পি মহোদয়কে অনুরোধ করবো তিনি যেন সরকারের উপরস্ত দপ্তরে সুপারিশ করে অত্র প্রতিষ্ঠানটির এমপিও ভুক্তির ব্যাপারে। তিনি বলেন এসব অভাবী শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা একদিন রোজগার না করলে তাদের মুখে আর খাবার ওঠে না।
পরিবার পরিজন নিয়ে কষ্টে থাকা এই মানুষগুলোর কথা চিন্তা করে তাদের পাশে এই মুহূর্তে দাঁড়ানোকে একজন বিবেকবান মানুষের কাজ বলে মনে করি। তাদের মুখে দুমুঠো খাবার তুলে দিতে পারলে নিজেদের ভাল লাগে। তাছাড়া, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় কোনো মানুষ না খেয়ে কষ্ট করবে না, আমরা তা করতে দিবো না। সেই লক্ষ্যে আমি এসব ছিন্নমূল অসহায় মানুষদের ঘরে ঘরে গিয়ে রাতের অন্ধকারে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিচ্ছি। আমার এই সহযোগিতা ঘাটাইলের মানুষের জন্য মৃত্যূর আগ পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।এটা আমার দায়িত্ব বলে আমি মনে করি। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সকলকে ধৈর্য্য নিয়ে বাড়িতে অবস্থান ও গুজব এড়িয়ে চলে সবাইকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন জীবন-যাপনের অনুরোধ জানান তিনি।এদিকে, প্রয়োজনীয় ঈদ সামগ্রী পেয়ে হতদরিদ্র অসহায় প্রতিবন্ধী এ সব মানুষগুলোর চোখে-মুখে খুশির আভাস লক্ষ্য করা গেছে। করোনা পরিস্থিতির দুর্দিনে এমন সাহায্য পেয়ে অনেকে তাদের পরিজনদের নিয়ে চারটা ডালভাত খেতে পারবেন বলে জানিয়েছেন খাদ্যসামগ্রী পাওয়া পরিবারগুলো।এ সময় স্কুলের সভাপতি কামরুজ্জামান রানা বলেন ভবিষতে যে কোনো দুর্যোগে স্কুলের পক্ষ থেকে আপনাদের পাশে যাতে থাকতে পারি দোয়া রাখবেন।আমাদের এমন কর্মসূচী অব্যাহত থাকবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর