× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩ জুন ২০২০, বুধবার

ফেনীতে আল্লাহ ও মহানবীর নামখচিত দৃষ্টিনন্দন ভাস্কর্যের উদ্বোধন

বাংলারজমিন

ফেনী প্রতিনিধি | ২৩ মে ২০২০, শনিবার, ৬:১২

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সংলগ্ন ফেনীর মহিপালে আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর দৃষ্টিনন্দন ইসলামী ভাস্কর্য উদ্বোধন করা হয়েছে। যাতে মহান আল্লাহ ও প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর নাম খচিত।


বিকেলে মহাসড়ক সংলগ্ন মহিপাল মিয়াজী বাড়ীর সামনে ভাস্কর্যটির উদ্বোধন করেন ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী। এসময় পৌরসভার মেয়র হাজী আলাউদ্দিন, প্যানেল মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী, ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর লুৎফুর রহমান খোকন হাজারী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্যানেল মেয়র  নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী জানান, ফেনী পৌরসভার অর্থায়নে ও তার উদ্যোগে মহান আল্লাহ তায়ালা ও হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর নামে একটি ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়। প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ১৩ নং ওয়ার্ডের মিয়াজী বাড়ীর রাস্তার মাথায় ভাস্কর্যটি নির্মাণ করে বেস্ট কনস্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। সুন্দর সুনিপুণ কারুকাজসহ আলোকিত ঝর্ণাধারার ভাস্কর্যটি তৈরি করতে সময় লাগে ৪ মাস। এটির আলোকসজ্জায় আলোকিত হয়েছে পুরো এলাকা। যা বহুদূর থেকে মহাসড়কে চলাচলকারীদের নজরে পড়বে।

দুলাল তালুকদার নামে এক দর্শনার্থী জানান, ভস্কর্যে লেখা রয়েছে ‘আল্লাহু’ ও ‘মুহাম্মদ’র নাম।
রাতে আলোর ঝলকানিতে পানির ফোয়ারায় সৌন্দর্যে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা।  ইসলামি ভস্কর্যটি ফেনীতে নতুন মাত্রা যোগ করলো।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Mohammad Mohsin
২৪ মে ২০২০, রবিবার, ৯:১৯

Alhamdu lillah ! But পবিএতার সাথে যত্ন নিতে হবে। পবিএতার দিকে সব সময় খেয়াল রাখতে হবে। আল্লাহ উদ্দোক্তাদের কল্যান করুন। আমিন।

নাছির উদ্দীন
২৩ মে ২০২০, শনিবার, ১০:৩৩

নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয় উদ্যোগ। ইসলামী স্থাপত্য বলতে হবে। ভাস্কর্য নয়। হাইওয়ে গুলোতে এ ধরনের আরও স্থাপত্য বানানোর উদ্যোগ নেয়া যায়।

Md. Harun Al-Rashid
২৩ মে ২০২০, শনিবার, ৮:৫৯

মহান আল্লাহ ও তাঁর রসুল (সঃ) এর অতি প্রশংসনীয় "নাম ফলক" ইসলামী সংস্কৃতির একটি মার্জিতা প্রতিফলন অবহেলে বা অজ্ঞতার বশে পৌত্তলিক শব্দ 'ভাস্কর্য' শব্দে প্রকাশ করা ইসলামের মূল আকিদার সাথে সাংঘর্ষিক। কারন পৌত্তলিকতার বিরুদ্ধেই ইসলামের একমাত্র অবস্হান। 'ভাস্কর্য' শব্দটির সবিস্তার অর্থ ও এর সমার্থক শব্দ দেখতে চাইলে আমাদের সর্বজন শ্রদ্বেয় মরহুম প্রধান বিচারপতি জনাব হাবিবুর রহমান সাহেব সম্পাদিত বাংলা ভাষার প্রথম ভাব-অভিধান 'যথাশব্দ' বইয়ের ৫৬৯,৫৬৩,৫৬৬ অনুক্রমে দেখা যেতে পারে। কাজটি সংস্কৃতির বিচারে দর্শনীয় ও ধন্যবাদার্হ হলেও মহান আল্লাহ ও রসুল (সঃ) এর নামে মূর্তির প্রতিশব্দ যত আকর্ষনীয়ই হোক তা ইসলামি সংস্কৃতির নামে মূর্তি,প্রতিমা ইত্যাদির সমার্থক 'ভাস্কর্য' না হয়ে "স্হাপত্য"হওয়া বাঞ্চনীয়।

অন্যান্য খবর