× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ২ জুন ২০২০, মঙ্গলবার

গজারিয়ায় দুগ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৭, তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

বাংলারজমিন

গজারিয়া প্রতিনিধি | ২৩ মে ২০২০, শনিবার, ৬:১৩

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলার ইমামপুর ইউনিয়নের হোগলাকান্দি গ্রামে বিএনপির নেতা লালুর আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে অতর্কিত হামলায় চালায় লালু গ্রুপ। এতে ৭ জন আহত হয়েছে, আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ সময় দুটি বসতঘরে ভাঙচুর এবং লুটপাট চালায় লালু বাহিনী ।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে ইমামপুর ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতা লালু গ্রুপের সাথে ছাএলীগ নেতা শেখ ফরিদ গ্রুপের বিরোধ ছিল। পূর্ব পূর্বশত্রুতার জের ধরে আজ সকাল দশটার দিকে লালু ও তার গ্রুপের শতাধিক লোকজন আধুনিক অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ শেখ ফরিদ ও তার লোকজনদের উপরে। এ সময় শেখ ফরিদ ও তার ছোট ভাই রকিব শিকদারসহ আহত হয় ৭ জন । আহরা হলেন, শেখ ফরিদ (৩৩), রকিব শিকদার (২০), ইকরাম(৩৫), রাজু(১৬), সাকিব(২৫), মিলন(১৮), জয়নব বেগম (৩০)।
স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। তাদের মধ্যে তিনজনের ( শেখ ফরিদ, রকিব ও ইকরামের) অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ঢাকা পাঠিয়ে দিয়েছে।

গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা.মাহি আলম জানান, আহত তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের মাথায় এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

ভুক্তভোগী আবুল কালামের মেয়ে করুণা আক্তার জানান, তাদের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে সাড়ে চার ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৪৩ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা।

আহত শেখ ফরিদ জানান, বিএনপি নেতা লালু মূলত সাইদুর খানের লোক আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাইদুর খানকে অনৈতিকভাবে সুবিধা দিতে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে সে।
এলাকায় একের পর এক সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে সে।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে গজারিয়া থানার ওসি তদন্ত মোঃ মামুন আল রশিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে । এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে তবে এখনো পর্যন্ত কেউ থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর