× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩০ মে ২০২০, শনিবার

যে কারণে ভাইরাল শ্রীলেখার ভিডিও

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক | ২৩ মে ২০২০, শনিবার, ১১:১৫

২০৫০ সালে চলে গেলেন কলকাতার আলোচিত অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র! ওই সময়ে নিজেকে রেখে এক ভিডিওর মাধ্যমে প্রকাশ করলেন মানুষের আগের জীবনের কথা। আগের জীবন বলতে তিনি ২০২০ বা তার আগের সময়কেই বুঝিয়েছেন। কেমন ছিল সেই জীবন? শ্রীলেখা কাটা কাটা স্বরে ভিডিওতে কথা বলছেন। কাটা কাটা স্বর, কারণ তার মনে হয়েছে ২০৫০-এ মানুষের কথা বলার ভঙ্গিও বদলে যাবে। তিনি বলছেন, তখন মানুষ মাস্ক পরতো না। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতো না। যখন খুশি পার্টি করতো। না, শুধু পলিটিক্যাল পার্টি নয়, বন্ধুদের সঙ্গেও পার্টি।
তখন ‘আড্ডা’ বলে একটা বিষয় ছিল...। এই ভাবেই বলে চলেছেন শ্রীলেখা। যখন পলিটিক্যাল পার্টির কথা বলছেন তখন ছবিতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ। তারা বক্তৃতা সভায় উপস্থিত। অন্যদিকে আবার বন্ধুদের সঙ্গে কাটানো বিভিন্ন মুহূর্ত ভেসে আসছে ভিডিওতে, যাকে আর এক ধারার পার্টি হিসেবে ব্যাখ্যা করছেন শ্রীলেখা। সেখানে দেখা যাচ্ছে অভিনেত্রী বন্ধুদের সঙ্গে ওয়াইনের গ্লাসে চুমুকে খুশিতে ভরপুর। এ রকম করেই নানা বিষয় ভিডিওতে তুলে ধরছেন অভিনেত্রী। তার ভিডিওর এক অধ্যায় জুড়ে আছে লিপস্টিক! লিপস্টিককে কতখানি মিস করছেন তিনি তা বোঝা যাচ্ছে! যেহেতু সময় ২০৫০, তাই শ্রীলেখা ব্যাখ্যা করছেন কেমন করে লিপস্টিক ঠোঁটে লাগাতো ২০২০ সালের মানুষেরা। লিপস্টিক প্রসঙ্গ থেকেই অনায়াসে রাতের পার্টি আর চুমুর প্রসঙ্গে চলে গিয়েছেন শ্রীলেখা। দেখাচ্ছেন মানুষ একে অন্যকে ভালো লাগলে কী গভীর ভাবে চুমুু খেত। হতাশা তার গলায়, কারণ সময় ২০৫০। মানুষ আর সে রকম নেই। কিন্তু শ্রীলেখা ওই সময়ে কেমন আছেন? কী ভাবে আছেন? তাকে দেখতে কেমন হয়েছে? সেটা দেখাবে তার ২০৫০ সালের দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ভিডিও। ভিডিওর ভাবনা যে সম্পূর্ণ কল্পনাভিত্তিক এবং অনুমানমূলক, তা কোনো ধর্মীয় বিশ্বাস বা রাজনীতিকে সমর্থন করে না, তা-ও স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন শ্রীলেখা। মুহুর্তেই তার এ ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। নতুন করে আলোচনায় আসেন অভিনেত্রী। অনেকেই তার এই ভিডিওর ভাবনার প্রসংশা করেছেন। অবশ্য কিছু মানুষ সমালোচনাও করেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর