× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা ট্রাম্পের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৩০ মে ২০২০, শনিবার, ৯:২৬

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। করোনা ভাইরাস (কভিড-১৯) মোকাবিলায় সংস্থাটির পদক্ষেপ নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে শুক্রবার এমন ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড। তিনি বলেন, সংস্থাটি তাদের অনুরোধ মেনে পরিবর্তন আনতে ব্যর্থ হয়েছে। এ খবর দিয়েছে দ্য হিল।
শুক্রবার হোয়াইট হাউজে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প অভিযোগ করেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সম্পূর্ণরুপে চীনের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তিনি আরো বলেন, সংস্থাটি তাদের কার্যক্রমে তার প্রশাসনের অনুরোধ করা পরিবর্তন আনতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে প্রতিশ্রুত অর্থ অন্যান্য বৈশ্বিক স্বাস্থ্যজনিত সমস্যা মেটানোয় ব্যয় করা হবে।
ট্রাম্প বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কী পরিবর্তন আনা প্রয়োজন তা আমরা বিস্তারিতভাবে জানিয়েছি। তাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করেছি। কিন্তু তারা এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়নি।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে বৈরিতা চলছে ট্রাম্প প্রশাসনের।
করোনা মহামারি নিয়ে সংস্থাটির পদক্ষেপ নিয়ে অসন্তুষ্ট তার প্রশাসন। এর আগে গত এপ্রিলে সংস্থাটিতে অর্থায়ন বন্ধের ঘোষণা দিয়ে তীব্র সমালোচনার শিকার হন ট্রাম্প। বার্ষিক হিসাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ৪০ কোটি ডলারের বেশি অর্থ দিয়ে থাকে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্বের মধ্যে সংস্থাটির সবচেয়ে বড় অর্থদাতার স্থান তাদের। এই অর্থ বন্ধ হয়ে যাওয়া সংস্থাটির জন্য ব্যাপক এক আঘাত।
এদিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণার সমালোচনা করেছে দ্য আমেরিকান মেডিক্যাল এসোসিয়েশন। এক বিবৃতিতে সংস্থাটি বলেছে, এই সম্পর্ক ছিন্নের পেছনে কোনো যৌক্তিক কারণ নেই। এতে বিশ্বজুড়ে করোনা মোকাবিলা আরো কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একাধিক উপদেষ্টা কমিটিতে কাজ করা জর্জটাউন ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক লরেন্স গস্টিন বলেন, ট্রাম্পের এই পদক্ষেপ আমেরিকানদের আরো অনিরাপদ করে তুলবে। ট্রাম্পের পদক্ষেপটি সমালোচনা করেছেন মার্কিন পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটের স্বাস্থ্য বিষয়ক কমিটি থেকেও। কমিটির চেয়ারম্যান সিনেটর লামার আলেক্স্যান্ডার বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভুলগুলো অবশ্যই খতিয়ে দেখা উচিৎ। তবে সে সময় এখন না। বিশ্বজুড়ে বিদ্যমান স্বাস্থ্য সংকট প্রশমিত হওয়ার পর।
উল্লেখ্য, ট্রাম্পের ঘোষণা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে কোনো সাড়া পায়নি দ্য হিল। ট্রাম্প সংস্থাটির বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ আনলেও সংস্থাটি তাদের পদক্ষেপ যথাযথ ছিল বলে দাবি করেছে। একইসঙ্গে তাদের কর্মকাণ্ড চীনপন্থি হওয়ার অভিযোগও প্রত্যাখ্যান করেছে। গত ১৮ই মে সংস্থাটির প্রধান টেড্রস আধানম ঘেব্রিয়েসুসের কাছে কঠোর ভাষায় লেখা একটি চিঠি পাঠান ট্রাম্প। তাতে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন পেতে হলে সংস্থাটির কী কী পরিবর্তন আনতে হবে সেসব বিষয় উল্লেখ করেন তিনি। সংস্থাটি ওই সময় জানিয়েছিল, তারা ট্রাম্পের চিঠির ব্যাপারটি ভেবে দেখছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর