× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৩ জুলাই ২০২০, শুক্রবার

চট্টগ্রামে করোনায় চিকিৎসক ও কাস্টমস কর্মকর্তার মৃত্যু

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে | ৪ জুন ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:৩২

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে প্রথম এক চিকিৎসক ও কাস্টম হাউসের এক কর্মকর্তার মৃত্যু হয়েছে। মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম বুধবার (৩ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ওদিকে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন কাস্টম হাউজ কর্মকর্তা জসিম উদ্দীন মজুমদার। চট্টগ্রাম কাস্টমসের সহকারী কমিশনার নুর এ হাসনা সানজিদা অনসূয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, কাস্টমসের বিভিন্ন স্তরের ১৪ জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু জসিম উদ্দীন মজুমদারের মৃত্যুতে কোনো কাস্টমস কর্মকর্তার প্রথম মৃত্যু হলো।
নুর এ হাসনা সানজিদা অনসূয়া জানান, জসীম উদ্দিন মজুমদার চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসে কর্মরত অবস্থায় করোনা আক্রান্ত হন। তিনি সুপারিন্টেনডেন্ট পদে কর্মরত ছিলেন।
অফডকে (এছাহাক ব্রাদার্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড) অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
তিনি জানান, জসীম উদ্দীন মজুমদার করোনা আক্রান্ত হয়ে সম্প্রতি রাজধানী ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি হন। এরপর মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টা ৫ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার জানাজা ও দাফন ফেনী শহরের গ্রামের বাড়িতে সমপন্ন হবে।
তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট এক্সিকিউটিভ অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাকাএভ)। এর পক্ষ থেকে বলা হয়, করোনা যুদ্ধে বাংলাদেশ কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট বিভাগের প্রথম শহীদের বিদেহী আত্নার মাগফিরাত কামনা করছি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। পরম করুণাময় আল্লাহ যেন তাকে জান্নাতবাসী করেন এবং পরিবারের সবাইকে এই শোক সহ্য করার শক্তি দেন।
এদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. এহসানুল করিম মারা গেছেন। চট্টগ্রামে তিনিই প্রথম চিকিৎসক যার মৃত্যু হলো। বুধবার (৩ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি চট্টগ্রামের বেসরকারী ইউএসটিসি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক সহযোগী অধ্যাপক ছিলেন।
স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সমপাদক ও চট্টগ্রামে সংগঠনটির করোনা সেলের প্রধান ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, চারদিন আগে ডা. এহসানুল করিমের করোনা শনাক্ত হলে তাঁকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে বুধবার দুপুরে আইসিইউতে নেওয়ার পথেই তার মৃত্যু হয়। ডা. এহসান ব্লাড ক্যান্সারেও ভুগছিলেন।
প্রসঙ্গত, চট্টগ্রামে করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসকরা একে একে যখন হাসপাতাল ও চেম্বারে সেবা বন্ধ রেখেছেন, তখন মানবতার এই ফেরিওয়ালা চেম্বার খোলা রেখে রোগীদের সেবা দিয়ে আসছিলেন। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন, চিকিৎসকদের সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চট্টগ্রাম শাখা। সংগঠনের সভাপতি ডা. মুজিবুল হক ও সাধারণ সমপাদক ডা. ফয়সাল ইকবাল মরহুমের আত্নার মাগফেরাত কামনা ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর