× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৮ জুলাই ২০২০, বুধবার

২৫৫০ তাবলিগ জামাত সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করল ভারত

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, ১০:২৯

মার্চ মাসে করোনাকে উপেক্ষা করে দিল্লির মারকাজে তাবলিগ জামাত নিয়ে গত দুই মাসে প্রবল বিতর্ক তৈরি হয়েছে ভারতে। মুসলিম বিদ্বেষের অভিযোগে মুসলিম দেশগুলি সোচ্চারও হয়েছে। এরই মধ্যে ভারত সরকার ৪০টি দেশের ২,৫৫০ তাবলিগ জামাত সদস্যকে কালো তালিকাভুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে। ওই ব্যক্তিরা আগামী দশ বছর ভারতে প্রবেশ করতে পারবেন না। ভারতে প্রবেশের ক্ষেত্রে এক ধাক্কায় এতজনকে কালো তালিকাভুক্ত করার নজির এই প্রথম বলেই জানিয়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। জানা গেছে, আগামী দিনে ভারতে তাবলিগ জামাতের কর্মকান্ডে যোগ দিতে আসা কোনও ব্যক্তিকে ভিসা দেওয়া হবে না বলেও নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত সরকার। কালো তালিকাভুক্তদের বিরুদ্ধে মেয়াদ পেরিয়ে যাওয়ার পরে ভারতে থাকা, পর্যটন ভিসায় এসে ধর্মপ্রচার করা, করোনা সংক্রান্ত নিয়মবিধি ভাঙার মতো একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, রাজ্যগুলির কাছ থেকে পাওয়া অভিযোগের ভিত্তিতেই ওই বিদেশি জামাত সদস্যদের কালো তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।
বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্ক, কিরঘিজস্তানসহ ৪০টি দেশ থেকে তাবলিগ সদস্যরা দিল্লির জামাতে অংশ নিয়েছিলেন। এরপর তারা বিভিন্ন রাজ্যেও ছড়িয়ে পড়েছিলেন। এদের সকলকেই চিহ্নিত করা হয়েছে। সকলকে কোয়ারেন্টিনে রেখে স্বাস্থ্য পরীক্ষাও করা হয়েছে। তবে এবার এদের সকলকে দিল্লিতে নিয়ে এসে স্বদেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। পশ্চিমবঙ্গে তাবলিগের ১০৮ জন তাবলিগ সদস্য রয়েছেন। এদের মধ্যে একদলকে বিহার হয়ে দিল্লি পাঠানো হয়েছে। তবে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আরাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যে থাকা ১৯ বাংলাদেশি তাবলিগ সদস্যকে পেট্রাপোল দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া একেবারে শেষ মুহূর্তে ভারত সরকারের নির্দেশে বাতিল করা হয়েছে। এদের সকলকেই দিল্লিতে পাঠানো হবে বলে জানা গেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর