× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ৮ জুলাই ২০২০, বুধবার

খুলনায় ৮৫ হাজার জেলে পাচ্ছেন ভিজিএফ’র চাল

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, ৫:১৯

সাগরে মাছ ধরা বন্ধ থাকায় খুলনা বিভাগের তিনটি জেলার ১০টি উপজেলার ৮৫ হাজার ৬০৬ জন নিবন্ধিত জেলে পাচ্ছেন বিশেষ ভিজিএফ’র চাল। তাদের জন্য ৪ হাজার ৭৯৩ দশমিক ৯৩ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। বরাদ্দকৃত চাল আগামী ১৫ জুনের মধ্যে পৌঁছে দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
মৎস্য অধিদপ্তর খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এইচ. এম বদরুজ্জামান বলেন, জেলেদের জন্য ভিজিএফ’র চাল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। নিবন্ধিত জেলেরা পরিবার প্রতি ৫৬ কেজি করে চাল পাবেন। সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা এই চাল বিতরণ করবেন।’
বাংলাদেশের সামুদ্রিক জলসীমায় ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এজন্য জেলেদের জন্য মানবিক সহায়তা কর্মসূচির আওতায় বিশেষ ভিজিএফ’র চাল দেওয়া হচ্ছে।
খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার জেলেরা এই বরাদ্দ পাচ্ছেন। খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা, দাকোপ, কয়রা, পাইকগাছা ও রূপসা এই পাঁচটি উপজেলায় নিবন্ধিত জেলে রয়েছেন ৩১ হাজার ৫১০ জন। নিবন্ধিত জেলেরা পরিবার প্রতি ৫৬ কেজি হিসেবে বরাদ্দ পেয়েছেন ১ হাজার ৭৬৪ দশমিক ৫৬ মেট্রিক টন চাল।
বিভাগের বাগেরহাট উপজেলার মংলা, মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা উপজেলায় নিবন্ধিত জেলে রয়েছেন ২৩ হাজার ০৪২ জন।
বরাদ্দ পেয়েছেন ১ হাজার ২৯০ দশমিক ৩৫ মেট্রিক টন চাল।
বিভাগের সাতক্ষীরা জেলার শুধু শ্যামনগর ও আশাশুনি উপজেলায় নিবন্ধিত জেলে রয়েছেন ৩১ হাজার ৫৪ জন। তাদের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ১ হাজার ৭৩৯ দশমিক ২ মেট্রিক টন চাল। ২০ মে থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত ৪২ দিনের জন্য বরাদ্দকৃত চাল বিতরণের শেষ সময় ১৫ জুন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর