× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৯ আগস্ট ২০২০, রবিবার
কলকাতা কথকতা

প্রেমিকাকে খুন করবে বলে নিজের হাতে বন্দুক বানিয়েছিল জয়ন্ত

কলকাতা কথকতা

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা | ২২ জুন ২০২০, সোমবার, ১১:৫৯

প্রেমিকা প্রিয়াঙ্কা পুরোকায়স্থকে খুন করবে বলে ইউ টিউব থেকে বন্দুক বানানো শিখে নিজের হাতে বন্দুক বানিয়ে হত্যাকান্ড সংগঠিত করেছে। লালবাজারে গোয়েন্দা পুলিশের জেরার মুখে ভেঙে পরে এই জবানবন্দি দিয়েছে জয়ন্ত হালদার । উল্লেখযোগ্য, দুদিন আগে প্রেমিকা প্রিয়াঙ্কাকে গুলিতে ঝাঁঝরা করে খুন করে জয়ন্ত। দক্ষিণ কলকাতার রিজেন্ট পার্কে। জয়ন্তকে আদালতে তোলা হলে তাকে দশদিনের পুলিশ হেফাজত দিয়েছেন বিচারক । বিবাহিত জয়ন্ত’র প্রেমে পরে কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী একুশ বছরের প্রিয়াঙ্কা। ছাব্বিশ বছরের জয়ন্ত জানায় সে প্রিয়াঙ্কার জন্যে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতেও রাজি। এরই মধ্যে প্রিয়াঙ্কা জানতে পারে যে জয়ন্তর স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা।
এই ঘটনা জানতে পারার পরই প্রিয়াঙ্কা জয়ন্ত’র সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। বহু চেষ্টাতেও জয়ন্ত আর প্রিয়াঙ্কার নাগাল পায়না । এরপরই সে প্রিয়াঙ্কাকে রোষে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করে। বন্দুক জোগাড় করার চেষ্টায় ব্যার্থ হয়ে জয়ন্ত ইউ টিউব দেখে বন্দুক বানানোর কৌশল রপ্ত করে। দু মাসের চেষ্টায় বন্দুক বানাতে সে সক্ষম হয় বলে পুলিশকে জানিয়েছে। কিন্তু ঘোড়া হলেও চাবুক হয়না। কার্তুজ জোগাড় করতে ব্যর্থ হয় অপেশাদার খুনি জয়ন্ত। আবার সে শরণাপন্ন হয় ইউ টিউব এর। সাইকেল এর বল বেয়ারিং এর সঙ্গে বারুদ ঠেসে মেকশিফট কার্তুজ তৈরি করে জয়ন্ত। তার বন্দুক কাজ করবে কিনা সেই সম্পর্কে অনিশ্চিত জয়ন্ত ধারালো ছুরিও নেয় সঙ্গে। তাই, ঘটনার দিন প্রিয়াঙ্কার গলা লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ার পর প্রিয়াঙ্কাকে ছুরির কোপও মেরেছিলো জয়ন্ত। কলকাতার বিশিষ্ট মনোবিদ ডা: অমরনাথ মল্লিক এর মতে, চূড়ান্ত হতাশা এবং প্রতিহিংসার কারণে এতটা বেপরোয়া হয় জয়ন্ত। কিন্তু, যে ভাবে সে ইউ টিউব দেখে বন্দুক বানিয়েছে তাতে জয়ন্তকে ঠান্ডা মাথার খুনি বলে বর্ণনা করছেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর