× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিপ্রবাসীদের কথাবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকরোনা আপডেটকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজান
ঢাকা, ১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার
বার্সেলোনা-অ্যাটলেটিকো দ্বৈরথ আজ

কোচ সেতিয়েনের অগ্নিপরীক্ষা

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ৩০ জুন ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:০৬

চাপে থাকা কোচ কিকে সেতিয়েন ও বার্সেলোনার সামনে অগ্নিপরীক্ষা। স্প্যানিশ লা লিগায় কাতালানরা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের মুখোমুখি হচ্ছে আজ। বার্সেলোনার ন্যু ক্যাম্প মাঠে খেলা শুরু রাত ২টায়। লীগের  মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে দুই শিবিরে ভিন্ন চিত্র। চির প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে শীর্ষ স্থান খুইয়ে হতাশা আবিষ্ট মেসি-সুয়ারেজরা। সমালোচনার মুখে চাপে রয়েছেন বার্সা কোচও। জিতলেই কেবল পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থান পুনরুদ্ধার সম্ভব। অন্যদিকে অ্যাটলেটিকো রয়েছে দারুণ ফর্মে।
পয়েন্ট তালিকার সেরা চারও তাদের নিশ্চিত।
বার্সেলোনাকে টানা দুই মৌসুমে লা লিগা জিতিয়েও চাকরি খোয়াতে হয়েছিল কোচ আরনেস্তো ভালভার্দেকে। জানুয়ারিতে কাতালান জায়ান্টরা হট সিটে বসায় কিকে সেতিয়েনকে। কিন্তু তিনি দায়িত্ব নেয়ার পর বার্সার পারফরম্যান্সের উন্নতি হয়নি। উল্টো চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে এখন লীগ শিরোপাটা হারাতে বসেছে দলটি। এমন পরিস্থিতিতে মিডিয়ায় গুঞ্জন, বার্সার খেলার উন্নতি না হলে মৌসুম শেষে বরখাস্ত হবেন সেতিয়েন।
দায়িত্ব নেয়ার পর সেতিয়েন বলেছিলেন, ‘আমি সুন্দর ফুটবল উপহার দিতে চাই।’ প্রথম কয়েক ম্যাচে বার্সাকে পাসিং ফুটবল খেলিয়েছেন। কিন্তু বর্তমান দল দিয়ে যে এটা খুব একটা কার্যকর হবে না, তা বুঝতে বেশি সময় লাগেনি সেতিয়েনের। এরপর বেশ কয়েকবার ট্যাকটিকসে পরিবর্তন আনেন এই কোচ। বার্সাও এক ম্যাচ ভালো খেলছে তো আরেক ম্যাচ খারাপ। সবশেষ লীগ ম্যাচে সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে দুইবার এগিয়েও ২-২ গোলে ড্র করে বার্সা। আর এস্পানিওলকে ১-০ গোলে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ স্থান দখল করে নেয় রিয়াল মাদ্রিদ। ৩২ ম্যাচ শেষে বার্সেলোনার চেয়ে ২ পয়েন্টে এগিয়ে কোচ জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।
গোলডটকম জানিয়েছে, সেতিয়েন এরই মধ্যে তার শিষ্যদের আস্থা হারিয়েছেন। টিম ম্যানেজমেন্টও তার ওপর ভরসা করতে পারছে না। ভালভার্দের উত্তরসূরি হিসেবে সেতিয়েন কখনোই বার্সার প্রথম পছন্দ ছিল না। কাতালান জায়ান্টরা তাদের সাবেক খেলোয়াড় রোনাল্ড কোম্যানকে কোচ হিসেবে চেয়েছিল। কোম্যান প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়ার পর আরেক সাবেক তারকা জাভি হার্নান্দেজকে প্রস্তাব দেয় বার্সা। জাভিও তখন জানিয়ে দেন, এই মুহূর্তে কোচ হতে আগ্রহী নন, তবে ফেরার ইচ্ছা আছে তার। সাবেক এই মিডফিল্ডার গতকাল নতুন জানিয়েছেন, তিনি বার্সার কোচ হতে চান। তার এই মন্তব্য সেতিয়েনের ওপর চাপ বাড়িয়েছে। তবে তার হাতে এখনো ৬ ম্যাচ আছে। লা লিগা হাতছাড়া হলেও চ্যাম্পিয়ন্স লীগে বার্সাকে ট্রফি এনে দিতে পারলে হয়ত চাকরিটা বেঁচে যাবে তার। ২০১৫ সালের পর আর ইউরোপিয়ান আসরে শিরোপা জিততে পারেনি ক্লাবটি। ভালভার্দে বরখাস্ত হওয়ার প্রধান কারণই ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ব্যর্থতা।
পুনরায় লীগ শুরুর পর এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচে ৪টিতেই জিতেছে কোচ দিয়েগো সিমিওনের অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। একটি করেছে ড্র। ৩২ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাটলেটিকো। সমান ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট সংগ্রহ চতুর্থ স্থানের দল সেভিয়ার।

‘পথের ভোগান্তি’ নিয়ে মুখ খুললেন সুয়ারেজ

টানা দুই ম্যাচে পয়েন্ট খুইয়ে লা লিগা তালিকার শীর্ষ স্থান হারিয়েছে এফসি বার্সেলোনা। সেভিয়া ও সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে দুটিই ছিল ‘অ্যাওয়ে ম্যাচ’।  ঘরের মাঠে দুর্দান্ত হলেও প্রতিপক্ষের মাঠে খেই হারিয়ে ফেলছে বার্সেলোনা। কেন হচ্ছে এমন? দলের তারকা স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ সরাসরি দুষলেন দলের কোচিং দলকে। সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে গোল নিয়ে দুই দুইবার দলকে এগিয়ে নেন লুইস সুয়ারেজ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ১ পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তার দলকে। চলতি মৌসুমে বার্সেলোনার এমন সমস্যা প্রথম নয়। প্রতিপক্ষের মাঠে গেলেই যেন জিততে ভুলে যাচ্ছে বার্সেলোনা। লীগে এর মধ্যেই অ্যাথলেটিক বিলবাও, গ্রানাডা, লেভান্তে, ভ্যালেন্সিয়া ও রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে হেরেছে তারা। ড্র করেছে ওসাসুনা, রিয়াল সোসিয়েদাদ, এসপানিওল, সেল্টা ভিগো ও সেভিয়ার সঙ্গে। প্রতিপক্ষের মাঠে এমন জঘন্য ফর্মের জন্য সুয়ারেজ সরাসরি দুষেছেন কোচদের। চলতি লা লিগায় ১৩ গোল পাওয়া উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার বলেন, ‘আমাদের ফর্ম কেন বাজে? এ জন্য কোচদের জিজ্ঞেস করুন। তারা এসব পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করেন। প্রতিপক্ষের মাঠে এত বেশি পয়েন্ট আমরা আগের মৌসুমগুলোতে হারাতাম না। এগুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট।’ রিয়াল মাদ্রিদকে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে দেখে বিরক্ত সুয়ারেজ বলেন, ‘এমন ম্যাচে পয়েন্ট হারিয়ে বেশ খারাপ লাগছে। দুটি গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট হারালাম আমরা। আমাদের এখন হাতে থাকা বাকি সব ম্যাচ জিততে হবে ও অপেক্ষা করতে হবে যেন রিয়াল পয়েন্ট হারায়। এটা বেশ বিরক্তিকর একটা অনুভূতি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর