× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার

যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে করোনায় আক্রান্ত ৪৮ হাজার

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৪২

যুক্তরাষ্ট্রে তরতর করে বেড়ে চলেছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্তের সংখ্যা। মঙ্গলবার দেশটিতে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ৪৮ হাজারের বেশি। মহামারিটি শুরুর পর এটাই কোনো দেশে একদিনে সর্বোচ্চ সংখ্যক আক্রান্তের ঘটনা। এ নিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে চতুর্থবারের মতো রেকর্ড ভাঙলো যুক্তরাষ্ট্রে দৈনিক করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আলাস্কা, আরিজোনা, ক্যালিফোর্নিয়া, জর্জিয়া, আইডাহো, ওকলাহোমা, সাউথ ক্যালিফোর্নিয়া ও টেক্সাস অঙ্গরাজ্যেও এদিন রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস।
খবরে বলা হয়, মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে কংগ্রেসকে সতর্ক করেছেন দেশটির শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি এস. ফাউসি। কংগ্রেসকে দেয়া এক সাক্ষ্যে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব এলার্জি অ্যান্ড ইনফেকশিয়াস ডিজিসেস-এর প্রধান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, পরিস্থিতি এখনই নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে প্রতিদিন ১ লাখ মানুষ আক্রান্ত হতে পারে দেশটিতে। তিনি বলেন, নিশ্চিতভাবেই আমরা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে নেই।

ফাউসি বলেন, যেসব এলাকায় ভাইরাসটি দ্রুত বেড়ে চলেছে, কেবল সেসব এলাকায় নজর দিলেই চলবে না। এতে পুরো দেশ ঝুঁকির মুখে পড়বে। তিনি বলেন, প্রাথমিক উপাত্ত আশা জাগানিয়া থাকলেও, আপাতত টিকার কোনো নিশ্চয়তা নেই। আশা করা যায়, আগামী বছরের শুরুর দিকে টিকা পাওয়া যেতে পারে।
জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির হিসাব অনুসারে, বাংলাদেশ সময় বুধবার বিকাল ৪টা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ১ লাখ ২৬ হাজারের বেশি নিশ্চিত করোনা আক্রান্ত প্রাণ হারিয়েছেন। নিশ্চিত আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ লাখের বেশি। গত মাসে দেশটিতে অন্তত ১০ রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে। ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে ধস নামিয়েছে অর্থনীতিতেও। কাজ হারিয়েছেন কয়েক কোটি মানুষ। বন্ধ হয়ে গেছে অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।
যুক্তরাষ্ট্রে ভাইরাসটি সামলাতে ব্যর্থ হওয়ায় কঠিন সমালোচনার মুখে পড়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। আগামী নভেম্বরে সেখানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদের জন্য লড়বেন তিনি। তার ডেমোক্রেট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন মঙ্গলবার তার বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক অব্যবস্থাপনার অভিযোগ আনেন। তিনি বলেন, পরিস্থিতি এমন না-ও হতে পারতো। ডনাল্ড ট্রাম্প আমাদের ব্যর্থতায় ঠেলে দিয়েছেন।
গত এক সপ্তাহে ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস ও ফ্লোরিডা করোনা সংক্রমণ রোধে দ্বিতীয়বারের মতো ‘বার’ বন্ধ করে দিয়েছে। রাজ্যগুলোর কর্মকর্তাদের আশঙ্কা, বারগুলো থেকেই ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি ও কানেকটিকাট এক ঘোষণায় জানিয়েছে, ক্যালিফোর্নিয়াসহ মোট আটটি রাজ্যের বাসিন্দারের সে রাজ্যগুলোয় সফর করলে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিন বাধ্যতামূলক। এর আগের সপ্তাহে ফ্লোরিডা ও টেক্সাসের বাসিন্দাদের জন্য এ নিয়ম জারি করা হয়।
হুস্টন মেথডিস্ট হসপিটালের প্রধান নির্বাহী ড. মার্ক বুম মঙ্গলবার সিএনএনকে জানান, তার হাসপাতালে করোনা রোগীদের সংখ্যা কয়েকগুণ বেড়ে গেছে। যদিও কমেছে মৃত্যু হার।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর