× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার

কলম্বিয়া: অপ্রাপ্তবয়স্কদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ১১৮ সেনার বিরুদ্ধে তদন্ত

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ১০:১১

২০১৬ সাল থেকে অপ্রাপ্তবয়স্কদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগে কলম্বিয়ার সেনাবাহিনীর অন্তত ১১৮ সদস্যের বিরুদ্ধে তদন্ত চালু হয়েছে। এর মধ্যে অন্তত ৪৫ জনকে বরখাস্ত করা হয়েছে। বাকি ৭৩ জনের বিরুদ্ধে অপরাধ ও শাস্তিমূলক তদন্ত চলছে। সম্প্রতি সেনাসদস্যদের বিরুদ্ধে অল্পবয়স্ক মেয়েদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে দেশজুড়ে তীব্র সমালোচনার মুখে তদন্ত বিষয়ক তথ্য প্রকাশ করেছেন সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল এদুয়ার্দো জাপাতেইরো। এ খবর দিয়েছে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস ও দ্য গার্ডিয়ান।
খবরে বলা হয়, বুধবার এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে সেনাসদস্যদের বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের তদন্ত বিষয়ক তথ্য প্রকাশ করেন জাপাতেইরো। তিনি বলেন, সেনাবাহিনী এর সদস্যদের মধ্যে যৌন নির্যাতনের ইস্যুতে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি মেনে চলে।
গত সপ্তাহে রিসারালদা প্রদেশে এক আদিবাসী বালিকাকে গণধর্ষণের অভিযোগে সাত সেনাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
এ ঘটনায় ওই সাতজন ও তাদের তিন উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। আরো দুই উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়েছে। এছাড়া, গত সপ্তাহান্তে গুভায়ারে প্রদেশে এক বালিকাকে সেনাবাহিনীর একটি স্থাপনায় আটকে রেখে একাধিক সেনা যৌন নির্যাতন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ অনুসারে, ওই বালিকাকে কয়েকদিন যাবত কোনো খাদ্য বা পানি পর্যন্ত দেয়নি সেনারা।
সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনের ঘটনায় কলম্বিয়াজুড়ে সমালোচনার ঝড় সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে অভিযোগ করেছে, নিয়মতান্ত্রিকভাবে যৌন নির্যাতনের অপরাধে অভিযুক্ত সেনাদের রক্ষা করা হয়। তবে সেনাপ্রধান জাপাতেইরো এমন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন। বলেছেন, সেনাবাহিনীর কোনো প্রতিষ্ঠানেই সেনাদের বালক, বালিকা বা কিশোর-কিশোরীদের মানবাধিকারে হস্তক্ষেপের প্রশিক্ষণ দেয়া হয় না। তিনি সেনা সদস্যদের হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমি নৈতিকতা, নৈতিক মূল্যবোধ ও ভালো রীতিনীতির বাইরে কোনধরণের কর্মকাণ্ড সহ্য করবো না। এসব ক্ষেত্রে কাউকে দ্বিতীয়বারের মতো সুযোগ দেয়া হবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর