× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার

ইতালির ল্যাজিওতে বাংলাদেশিদের ব্যাপকহারে পরীক্ষা করানোর আহ্বান

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৪ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৯:৫৯

কেন্দ্রীয় অঞ্চল ল্যাজিওতে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি সম্প্রদায়কে ‘ব্লাঙ্কেট টেস্টিং’-এর জন্য আহ্বান জানিয়েছে ইতালি। সম্প্রতি সেখানে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। বিশেষ করে ওই অঞ্চলে ১০ জন বাংলাদেশিকে করোনায় সংক্রমিত পাওয়া গেছে। শুক্রবার সেখানে যাওয়া এক বাংলাদেশির দেহে করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
এখানে উল্লেখ্য, ব্লাঙ্কেট টেস্ট বলতে গড়পরতায় সবাইকে বোঝানো হয়েছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, ফেব্রুয়ারির শেষে ইতালিতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ দেখা দেয়ার পর ল্যাজিওতে প্রায় ৮ হাজার মানুষের দেহে করোনা ভাইরাস পজেটিভ দেখা দিয়েছে। লোম্বারডি এবং উত্তরাঞ্চলীয় অন্য সব এলাকার চেয়ে এখানে সংক্রমণ কিছুটা কম।
ল্যাজিওর প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আলেসিও ডি’আমাতো বলেছেন, সোমবার থেকে বাংলাদেশিদের করোনা পরীক্ষার জন্য একটি টেস্টিং সেন্টার খোলা হবে। সেখানে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশিকে এই পরীক্ষা করানোর জন্য আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। সব পরীক্ষাই হবে স্বেচ্ছাভিত্তিতে।
জাতীয় পরিসংখ্যান বিষয়ক প্রতিষ্ঠান আইএসটিএটি’র মতে, ইতালিতে বসবাস করেন এক লাখ ৪০ হাজার বাংলাদেশি। তার মধ্যে ল্যাজিওতে অবস্থান করেন ৩৭ হাজার। আর রাজধানী রোমে বসবাস করেন প্রায় ৩২ হাজার। ড’আমাতো এক বিবৃতিতে বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে যারা সেখানে যাবেন তাদেরকে অবশ্যই কোয়ারেন্টিনে রাখতে হবে। তার ভাষায়, বিমানবন্দরের বিভিন্ন কোম্পানি এবং চিকিৎসকদেরকে নিয়ন্ত্রণ কঠোর করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
বাংলাদেশে করোনা আক্রান্তের ঘটনা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। রিপোর্টে সরকারি তথ্য উদ্ধৃত করে বলা হয়, প্রায় এক লাখ ৫৬ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন প্রায় দুই হাজার। তবে বহু পর্যবেক্ষক মনে করেন, এই সংখ্যা অনেক কমিয়ে বলা হচ্ছে। কারণ, বাংলাদেশ ঘনবসতিপূর্ণ এবং দরিদ্র। ইতালির তিনগুন মানুষ বাস করেন এখানে। কিন্তু এখানে পরীক্ষা করানো হয়েছে অনেক কম মানুষকে। অন্যদিকে বিশ্বে করোনা যেসব দেশকে আক্রান্ত করেছে তার মধ্যে ইতালির অবস্থা অনেক খারাপ। সেখানে মারা গেছেন প্রায় ৩৫ হাজার মানুষ। গত দু’সপ্তাহে প্রতি দিন প্রায় ৫০ জনের কাছাকাছি মারা গেছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর