× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার

শায়েস্তাগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেহাল দশা

বাংলারজমিন

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি | ৫ জুলাই ২০২০, রবিবার, ৭:৩৬

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শিল্পাঞ্চল অলিপুর থেকে শায়েস্তাগঞ্জ নতুনব্রিজ পর্যন্ত সড়কে বেহাল দশা তৈরি হয়েছে। এতে দৈনিক যাত্রীদের যানবাহনে চলাচলে চরম  ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনার আশঙ্কায় জীবনের ঝুঁকি নিয়েই চলছে প্রতিদিন সহশ্রাধিক গণপরিবহন।
সরজমিনে জানা যায়,  অলিপুর থেকে শায়েস্তাগঞ্জের নতুন ব্রিজ পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের অভাবে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে উপরের স্তর উঠে গিয়ে ছোট-বড় খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। ফলে যাত্রীদের ঝুঁকি নিয়ে এই সড়কে চলাচল করতে হচ্ছে। এতে করে প্রায়ই ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। খানাখন্দে পরিপূর্ণ রাস্তা দিয়ে চলতে গিয়ে শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন নিয়মিত যাতায়াতকারী যাত্রীসহ পেশাজীবী ও ব্যবসায়ীরা। সড়কটিতে যাতায়াতকারী ট্রাকচালক মকবুল মিয়া জানান, মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্থান অলিপুর রেলগেটের অবস্থা খুব করুণ।
সড়ক দুর্ঘটনায় মহাসড়কের রেলগেটের পাশে ডিভাইডারটি ও ভেঙে গেছে। বর্তমানে গর্তগুলো বড় হয়ে যাওয়ায় বৃষ্টি হলেই পানি জমে যায়। তাছাড়া এসব গর্ত অতিক্রম করে প্রতিদিন গাড়ি চলাচল করার কারণে গাড়ির ইঞ্জিনেরও বিভিন্ন যন্ত্রাংশ বিকল হয়ে যাচ্ছে। পাশাপাশি যাত্রাপথে নির্ধারিত সময়ের চেয়ে সময় বেশি লাগছে। অন্যদিকে দূরপাল্লার বাসচালক শহীদুল্লা জানান, শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রিজ গোল চত্বরে এলেই ভিতরে অজানা আতঙ্ক বিরাজ করে, এসব খানাখন্দে পড়ে কখন গাড়ির চাকা পাঙচার হয়ে যায়। চালকরা আরো বলেন, সড়কগুলো জরুরি ভিত্তিতে সংস্কার প্রয়োজন। তা না হলে বড়ধরনের দুর্ঘটনার সম্ভাবনা রয়েছে। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ বিভাগের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী জ্যোতিষ গোস্বামী বলেন, আমাদের এ বিষয়ে নজর আছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই আশাকরি সংস্কার কাজ শুরু হয়ে যাবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর