× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার

লিবিয়ায় বিদেশি হস্তক্ষেপ অপ্রত্যাশিত পর্যায়ে পৌঁছেছে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৯ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৩৬

লিবিয়া যুদ্ধে বিদেশি হস্তক্ষেপ অপ্রত্যাশিত পর্যায়ে পৌঁছেছে বলে সতর্ক করেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুঁতেরা। সেখানে এই লড়াইয়ের মূলে থাকা ব্যক্তিদের এবং তাদের সমর্থকদের রাজনৈতিক অচলাবস্থা কাটিয়ে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। আহ্বান জানিয়েছেন শান্তি সংলাপ শুরু করতে। বর্তমান পরিস্থিতিকে তিনি অত্যন্ত অন্ধকারময় বলে আখ্যায়িত করেন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন আরব নিউজ। বুধবার তিনি বলেন, লিবিয়ায় জাতিসংঘের রাজনৈতিক মিশন উত্তেজনা প্রশমিত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এর অধীনে নিরস্ত্রীকরণ জোন সৃষ্টির চেষ্টা রয়েছে, যাতে সমঝোতার মাধ্যমে সমাধান বেরিয়ে আসে। রক্ষা পায় জীবন।
তিনি বলেন, ১লা এপ্রিল থেকে ৩০ শে জুন পর্যন্ত লিবিয়ায় কমপক্ষে ১০২ জন বেসামরিক মানুষ মারা গেছেন। আহত হয়েছেন ২৫৪ জন। ২০২০ সালের প্রথম চতুর্ভাগের তুলনায় এই সংখ্যা শতকরা ১৭২ ভাগ বেশি।
লিবিয়ার সঙ্কট নিয়ে বিশ্বের ১১টি শক্তিধর দেশ ও অন্য দেশগুলোর বার্লিন কনফারেন্সের ৬ মাস পরে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে উচ্চা পর্যায়ের বৈঠকে বক্তব্য রাখছিলেন অ্যান্তনিও গুতেরাঁ। বার্লিন কনফারেন্সে লিবিয়ায় জাতিসংঘের অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন, যুদ্ধরত দলগুলোকে সামরিক সহযোগিতা দেয়া বন্ধের আহ্বান লঙ্ঘন নিয়ে এবং তাদেরকে পূর্ণাঙ্গ অস্ত্র বিরতিতে পৌঁছার জন্য একমত হয়েছিলেন নেতারা। কিন্তু তাতে ব্যর্থ হয়েছেন তারা। তাদের সেই ব্যর্থতার পর গুতেরাঁও এবং একের পর এক বক্তা সেই ব্যর্থতার কথা তুলে ধরেন এবং বার্লিনের সেই ঐকমত বাস্তবায়নের আহ্বান জানান। অস্ত্র বিরতির আহ্বানে একমত হয়েছিলেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই, দক্ষিণ আপ্রিয়কার আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক মন্ত্রী নালেদি প্যান্দোর এবং মিশরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর