× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার
আইসিসিকে সাবেক লঙ্কান ক্রিকেটারের প্রশ্ন

হাঁটু গেড়ে বসাটা কি রাজনৈতিক নয়?

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১১ জুলাই ২০২০, শনিবার, ৯:০১

ক্রিকেট মাঠে রাজনৈতিক, বর্ণবাদী কিংবা ধর্মীয় বার্তা দেয়া নিষিদ্ধ। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) কৃষ্ণাঙ্গ মানুষের সমর্থনে বিশ্বব্যাপী চলমান ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনকে সমর্থন দিয়েছে। এজন্য ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থার সমালোচানা করেছেন সাবেক লঙ্কান ক্রিকেটার ও ম্যানেজার চারিথ সেনানায়েকে। কিছুদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিক জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর বেগবান হয় ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন। কৃষ্ণাঙ্গদের প্রতি সংহতি জানাতে খেলোয়াড়রাও যোগ দেন এতে। বর্ণবাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন এখনো চলছে। ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার সিরিজের প্রথম টেস্টে ক্রিকেটাররা ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লোগো সংবলিত জার্সি পরে খেলতে নামেন। দুই দলের খেলোয়াড়রা হাঁটু গেড়ে মুষ্টি উঁচু করে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানান।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্রেসিংরুমের বাইরে ঝুলানো হয় ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ লেখা একটা ক্যারিবীয় পতাকাও। ২০১৬ সালে লর্ডসে শুধু শ্রীলঙ্কার জাতীয় পতাকা ওড়ানোয় সেনানায়েকের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক মতাদর্শ ছড়ানোর অভিযোগ তোলা হয়। তখন দলটির ম্যানেজারের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। সেই ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে চারিথ সেনানায়েকের দাবি, মাঠে পতাকা উড়ানো যদি রাজনৈতিক ব্যাপার হয় তবে কৃষ্ণাঙ্গদের সমর্থনে হাঁটু গেড়ে বসাটাও রাজনৈতিক।
শ্রীলঙ্কার হয়ে ৩ টেস্ট ও ৭ ওয়ানডে খেলা সেনানায়েকে বলেন, ‘কীভাবে এক হাঁটু গেড়ে সংহতি জানানোটা রাজনৈতিক নয়? লর্ডসে পতাকা ওড়ানোয় আমাকে একরকম শাস্তির মুখে ফেলে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি শুধু ক্রিকেটারদের মনোবল চাঙ্গা করতে এটা করেছিলাম।’ দিনের খেলা শেষে পতাকা নামিয়ে ফেলার জন্য বলা হয় সেনানায়েকেকে। কিন্তু তিনি নামাননি। পরদিনও পতাকা উড়িয়েছিলেন লর্ডসে। তিনি বলেন, ‘বাজে আম্পায়ারিংয়ের কারণে আমাদের ক্রিকেটারদের মনোবল ভঙ্গুর ছিল। আমরা ওদের বোঝাতে চেয়েছিলাম যে তাদের সঙ্গে আছি।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর