× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার

সাউদাম্পটনে ‘স্পেশাল উইন’ উইন্ডিজের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:৪২

ইংল্যান্ডের মাটিতে দুই দশক পর সিরিজের প্রথম টেস্ট জিতলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর জয় শেষে উইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার বলেন, ‘এটা আমাদের অন্যতম সেরা জয়।’
রোজ বোল মাঠে রোববার ম্যাচের পঞ্চম দিনের শেষ বিকালে ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে হোল্ডার বাহিনী। ম্যাচের চতুর্থ ইনিংসে উন্ডিজের টার্গেট ছিল ২০০ রানের। ২০০০ সালে ইংল্যান্ড সফরে পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে জিতেছিল ক্যারিবীয়রা। ২০ বছর পর সেটার পুনরাবৃত্তি করলো জেসন হোল্ডারের দল। তবে দুই দশক আগের সেই দ্বৈরথের ৩ ম্যাচে  হেরে সিরিজ খোয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রোববার ম্যাচ শেষে ক্যারিবীয় অধিনায়ক বলেন, ‘এটা আমাদের সেরা জয়গুলোর একটি। টেস্টে ইংল্যান্ডকে তাদের মাঠে এসে হারানোর অনুভূতি অসাধারণ।
২০১৭ সালে একবার এই অভিজ্ঞতা আমাদের হয়েছিল। জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করতে পারাটা দারুণ।’
৭ রানে দুই আর লাঞ্চের আগে দলীয় ৩৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে রীতিমতো কাঁপছিল সফরকারীরা। জফরা আর্চার ২ ও মার্ক উড নেন ১ উইকেট। এর পরই রোস্টন চেজ ও জার্মেইন ব্ল্যাকউডের প্রতিরোধ। চতুর্থ উইকেটে ৭৩ রানের জুটি দুজনের। চেজ ৩৭ করে ফেরার পর ব্ল্যাকউড খেলেন ৯৫ রানের অসাধারণ ইনিংস।
দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ আর ম্যাচে ৯ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরার পুরস্কার ওঠে শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের হাতে। চোটের জন্য গত সেপ্টেম্বর থেকে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট খেলেননি তিনি। ইংল্যান্ড সফরের জন্য ওয়েস্ট ইন্ডিজের মূল দলেও ছিলেন না। চোটের কারণে পুনর্বাসনে ছিলেন এই ফাস্ট বোলার। পরে ফিটনেসে নাটকীয়ভাবে উন্নতি হওয়ায় জায়গা পেয়ে যান দলে। হোল্ডা বলেন, ‘অবাক হইনি। সহজে হাল ছাড়ে না গ্যাব্রিয়েল। তাকে চোটের সঙ্গে লম্বা সময় লড়াই করতে হয়েছে। এটা তার প্রাপ্য ছিল। ফিট থাকলে ও কী করতে পারে এই ম্যাচে সেটা দেখিয়েছে।’ বেন স্টোকস ও জ্যাক ক্রলির জুটিতে একসময় ইংল্যান্ডের স্কোর ছিল ৩ উইকটে ২৪৯। ইংলিশরা সেসময় ৭ উইকেট অক্ষত রেখে ১৩৫ রানে এগিয়ে। ম্যাচ গড়াচ্ছিল ড্র’র দিকে। কিন্তু শেষ বেলায় পাল্টে যায় চিত্র। ইংলিশ অধিনায়ক স্টোকসকে ফিরিয়ে ৯৮ রানের জুটি ভাঙেন হোল্ডার। ৩০ রানের মধ্যে ইংল্যান্ড হারায় ৫ উইকেট। হোল্ডার বলেন, ‘চতুর্থ দিনটা নিজেদের করে নিতে কঠিন পরীক্ষা দিতে হয়েছে। দলের সবাই সর্বোচ্চটা দিয়ে লড়েছে। স্টোকস ও জ্যাক (ক্রলি) যখন ব্যাট করছিল, তখন মনে হচ্ছিল ম্যাচটা হারছি না। কিন্তু আমরা জিততে মরিয়া ছিলাম। সেজন্য পরিশ্রমটাও করতে হয়েছে বেশি। স্টোকস ও জ্যাকের জুটি ভাঙার পরই আমার মনে হয়েছিল স্পেশাল কিছু হতে যাচ্ছে।’ জো রুটের বদলে অধিনায়কত্ব করা বেন স্টোকস বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে আরও রান পেলে ভালো লাগত। আমরা বেশ ভালো অবস্থানে ছিলাম, কিন্তু নিজেদের ইনিংসটাকে কাজে লাগাতে পারিনি।’ ১৯৮৮ সালের পর ইংল্যান্ডে টেস্ট সিরিজ জেতা হয়নি ক্যারিবীয়দের। আগামী ১৬ই জুলাই ম্যানচেস্টারে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
প্রথম টেস্ট, সাউদাম্পটন
টস: ইংল্যান্ড, ব্যাটিং
ইংল্যান্ড: ২০৪ ও ৩১৩
উইন্ডিজ: ৩১৮ ও ২০০/৬
ফল: উইন্ডিজ ৪ উইকেটে জয়ী
ম্যাচ সেরা: শ্যানন গ্যাব্রিয়েল (উইন্ডিজ)
৩ ম্যাচের সিরিজ: উইন্ডিজ ১-০তে এগিয়ে

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর