× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৫ আগস্ট ২০২০, শনিবার

ছেলেদের লীগের সেরা শরণ্য

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৪ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার, ৮:৪২

ক্রিকেটাঙ্গনে আলোড়ন ফেলে দিয়েছেন শরণ্য সদরঙ্গনি। মেয়ে হয়েও খেলেছেন ছেলেদের টি-টেন লীগে। হয়েছেন টুর্নামেন্টের সর্বাধিক ক্যাচ নেয়া উইকেটকিপার। সদ্য পঁচিশে পা রাখা এই ‘বেঙ্গালুরু কন্যা’ জার্মানিতে গিয়েছিলেন পড়াশোনা করতে। আর জার্মান ক্রিকেট ইতিহাসেরই অংশ হয়ে গেলেন।
কুমারফেল্ডার স্পোর্টসভেরেন (কেএসভি) ক্লাবের হয়ে ৬ ম্যাচে উইকেটের পেছনে ৮টি ক্যাচ নিয়েছেন সদরঙ্গনি। টুর্নামেন্টে কোনো ছেলে উইকেটরক্ষক এতগুলো ক্যাচ লুফতে পারেননি। লীগে শেষ পর্যন্ত শরণ্যর টিমই হয়েছে চ্যাম্পিয়ন। জার্মানির ক্রিকেট মাঠে শরণ্যকে সবাই চেনে ‘শারু’ নামে ।
উত্তর জার্মানির কুমারফেল্ড শহর থেকে এই ভারত কণ্যা বলেন, ‘আমি কুমারফেল্ডার স্পোর্টসভেরেন (কেএসভি) ক্লাবের কাছে কৃতজ্ঞ। তারা আমাকে এই টি-টেন লীগে খেলার সুযোগ করে দিয়েছে।’
জার্মানিতে যাওয়ার আগে ইংল্যান্ডে এসেক্স কাউন্টির মেয়েদের টিমের হয়ে বেশ কয়েকটি ম্যাচ খেলেছিলেন শরণ্য । সেখানে মিস্টলি ক্রিকেট ক্লাবেও খেলেছেন কিছুদিন। কীভাবে জার্মানির টি-টেন লীগে খেললেন? শরণ্য বলেন, ‘সাত বছর আগে ইংল্যান্ডে গিয়েছিলাম পড়াশোনা করতে। একই কারণে উত্তর জার্মানিতে যাই। ইংল্যান্ডে থাকতেই জার্মান ক্রিকেট সংস্থার মোনিকা লাভডের সঙ্গে যোগাযোগ হয় আমার। এক সপ্তাহের মধ্যেই আমি ক্লাব পেয়ে যাই জার্মানিতে। ফের ক্রিকেট খেলার সুযোগ পেয়ে খুব আনন্দ হয়েছিল।’ শরণ্য যে ক্লাবে খেলেন, সেটিতে এশিয়ান ক্রিকেটারই বেশি। তিনি বলেন, ‘আমাদের কেএসভি ক্লাবেই বেশিরভাগ ক্রিকেটার ভারত, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের। তবে আমাদের যুব টিমে স্থানীয় জার্মান প্লেয়ারও আছে অনেক।’ টি-টেন লীগে খেলার পর জার্মান ক্রিকেট সংস্থার অ্যাকাডেমি টিমে ডাক পেয়েছেন শারণ্যা। জার্মান ক্রিকেটকে নিয়ে তার স্বপ্নটা অনেক বড়, ‘জার্মানির জাতীয় টিমে আমাকে ডাকা হয়েছে। আশা করি, জার্মানি ও সেই সঙ্গে ইউরোপে মেয়েদের ক্রিকেটের উন্নতিতে কিছু অবদান রাখতে পারবো।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর