× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার
রিজেন্টের এমডি গ্রেপ্তার

মেট্রোরেলের ৭৬ শ্রমিককে ভুয়া করোনা রিপোর্ট

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ২৬ জুলাই ২০২০, রবিবার, ৯:৪৩

 মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজে জড়িত ৭৬  শ্রমিকের ভুয়া করোনা রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা শাখার ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) মিজানুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল ভোরে গোপালগঞ্জের একটি বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ। উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি তপন চন্দ্র সাহা বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। সে  মেট্রোরেলের ৭৬  শ্রমিককে ভুয়া করোনা রিপোর্ট দিয়েছিল। এদিকে গ্রেপ্তারকৃত আসামি মিজানুর রহমানকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো  হলে পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। গ্রেপ্তারের দিন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট  মো. মইনুল ইসলাম রিমান্ডের এ আদেশ দেন। তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক ইয়াদুর রহমান তাকে আদালতে হাজির করে উত্তরা পশ্চিম থানায় দায়ের হওয়া মামলায় ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। শুনানি  শেষে বিচারক তা মঞ্জুর করেন।
এর আগে  মেট্রোরেল প্রকল্পে কর্মরত ৭৬ জন কর্মীকে ভুয়া করোনা রিপোর্ট  দেয়ার অভিযোগে গত  সোমবার রাতে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. শাহেদ করিমসহ হাসপাতালের কয়েকজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।  মেট্রোরেলের একটি সাব-কন্ট্রাক্টর প্রতিষ্ঠানের পক্ষে রেজাউল করীম বাদী হয়ে এ মামলাটি দায়ের করেন। মামলার অভিযোগে বলা হয়,  মেট্রোরেলে কর্মরত ৭৬ কর্মীর করোনার পরীক্ষা করা হয় রিজেন্ট হাসপাতালে। এজন্য পরীক্ষাপ্রতি সাড়ে তিন হাজার করে টাকা  নেয়া হয়। কিন্তু  টেস্ট না করেই ভুয়া রিপোর্ট  দেয়ায় কর্মীদের মধ্যে করোনার সংক্রমণ  বেড়েছে। মামলার  প্রধান আসামি শাহেদকে ১৫ই জুলাই ভোরে সাতক্ষীরার সীমান্ত এলাকা  থেকে  আটক করে র‌্যাব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর