× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

সন্তান যখন মায়ের খুনি

বাংলারজমিন

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি | ৩০ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:২৪

মহর আলী (৩৫)। এক সময় স্বাভাবিক জীবন ছিল তার। বিয়ে করেছিলেন, সংসার ছিল, সেই সংসারে এসেছিল এক কন্যাসন্তান। যার বয়স এখন ১০ বছর। কিন্তু মহর আলীর সেই জীবনের ইতি ঘটেছে বহু আগে। স্ত্রীও তালাক দিয়ে চলে গেছে বাপের বাড়ি। আর বিয়ে করা হয়নি। মাদকের প্রতি আসক্তি কেড়ে নিয়েছে তার সেই সাজানো জীবন।
মাদক সেবন করতে করেত এখন সে এক বিকৃত মস্তিষ্কের মানুষে পরিণত হয়েছে। শেষমেশ হয়েছে তার গর্ভধারিণী মায়ের খুনে অভিযুক্ত। বিড়ির টাকা না দেয়ায় নিজ মাকে বঁটিদা দিয়ে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগে সে এখন পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছে।
গত মঙ্গলবার সকালে উপজেলার ভাওড়া ইউনিয়নের কামারপাড়া গ্রামে এই কলঙ্কজনক ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় নিহত মায়ের নাম নয়সুন্দুরী (৭৫)। তিনি ওই এলাকার মৃত আবদুল মজিদের স্ত্রী। এই ঘটনায় মহর আলীর বঁটিদার আঘাতে আহত হয়েছেন আরো দুই নারী।
ঘটনা সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে মহর আলীর মা  যখন রান্না করছিলেন তখন সে তার মায়ের কাছে বিড়ি খাওয়ার টাকা দাবি করে। কিন্তু এতে অস্বীকৃতি জানায় তার মা। ক্ষিপ্ত হয়ে রান্না ঘরে থাকা বঁটিদা দিয়ে মায়ের উপর হামলে পড়ে মহর আলী। এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। তাকে নিবৃত করতে এগিয়ে যায় তারই ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ও পাশের বাড়ির এক বৃদ্ধা। কিন্তু তারাও মহর আলীর কোপের হাত থেকে রক্ষা পাননি। হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু হয় মহর আলীর মায়ের। বাকি আহতদের মধ্যে একজন গুরুতর অবস্থায় টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অপরজন প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়িতে অবস্থান করছেন বলে মির্জাপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বলেন, ঘাতক মহর আলীকে গ্রেপ্তার করার পর তাকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তাকে কোর্টে প্রেরণ করা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর