× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, শনিবার

মেহেরপুরে দুই শতাধিক গাঁজা গাছসহ বাগান ধ্বংস

বাংলারজমিন

মেহেরপুর প্রতিনিধি | ৩১ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, ৮:০৬

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মটমুড়া গ্রামে একটি গাঁজা বাগান ধ্বংস করেছে পুলিশ। গতকাল সকালে গাংনী থানা পুলিশের একটি টিম গাঁজা বাগানটির দুই শতাধিক গাঁজা গাছ কেটে ফেলে। এ সময় গাঁজা চাষি দুলাল পালিয়ে গেলেও তার স্ত্রী, ছেলে ও মেয়েকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।
গাংনী থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জানান, মটমুড়া গ্রামের কাশেমের ছেলে দুলাল তার বসতবাড়ি সংলগ্ন এক বিঘা জমিতে গাঁজা চাষ করছিল। গাংনী থানার ওসি ওবাইদুর রহমানের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাংনী থানা পুলিশের একটি টিম গত বুধবার রাত থেকে ওই বাড়ি বাগান ঘিরে রাখে। টের পেয়ে বাগান মালিক দুলাল পালিয়ে যায়। পুলিশ দুলালের স্ত্রী শেফালি, ছেলে শাকিল এবং মেয়ে শিউলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়। গতকাল সকালে পুলিশ সুপার  এসএম মুরাদ আলী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ও গাঁজা বাগান ধ্বংস করেন।
দুলালের পরিবার জানায়, দুলাল একজন মাছ ব্যবসায়ী। সে ওই জমিতে কি চাষ করেন তারা জানে না।
স্থানীয় লোকজন জানান, দুলালের বাড়ি নির্জন জায়গায়। কেউ তার বাড়ির আশেপাশে চলাফেরা করে না। ফলে নির্বিঘ্নে সে গাঁজা চাষ করছিল।
মেহেরপুর পুলিশ সুপার মুরাদ আলী জানান, দুলাল মাছ ব্যবসার আড়ালে গাঁজা চাষ করছিল। পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বুধবার রাত থেকেই দুলালের বাড়ি ও গাঁজা বাগান ঘিরে রাখে। গতকাল সকালে গাঁজা বাগানের দুইশটিরও বেশি গাঁজা গাছ কেটে সেগুলো আলামত হিসেবে জব্দ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেয়া হয়েছে তার স্ত্রী ও দুই সন্তানকে। সম্পৃক্ততা পেলে এদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর