× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

বানিয়াচঙ্গে বন্যা কবলিত এলাকায় গো-খাদ্য দিয়ে আসলেন ইউএনও

বাংলারজমিন

মখলিছ মিয়া,বানিয়াচং (হবিগঞ্জ) থেকে | ৩ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৪:৩১

হবিগঞ্জে বানিয়াচঙ্গে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অতিবৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বানভাসী পরিবারের গবাদিপশুর জন্য গো-খাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। ৩ রা আগষ্ট সোমবার বানিয়াচং সদরের বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্র ও হাওর পাড়ের বাড়ীতে গিয়ে নিজ হাতে গো- খাদ্য (খৈল,ভূসি,কুঁড়া) গবাদি পশুর মালিকদের হাতে তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মলয় কুমার দাস। গো-খাদ্য বিতরণকালে নির্বাহী অফিসার মাসুদ রানা বলেন, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে বানিয়াচংয়ের অধিকাংশ গ্রামগুলি বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় অসহায় মানুষগুলি তাদের গবাদিপশুর খাদ্য সংকটে রয়েছেন, আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দকৃত গবাদি পশুর গো-খাদ্য ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বিতরণ করছি। পরবর্তীতে ক্ষতিগ্রস্তদের সঠিক তালিকা করে পর্যায়ক্রমে বানিয়াচঙ্গের ১৫টি ইউনিয়নের প্রায় ৫শতাধিক গবাদি পশুর মালিককে গো-খাদ্য দেয়া হবে। আমরা চাই মানুষের পাশাপাশি আমাদের গবাদিপশু গুলোও যেন খাদ্য সংকটে না পড়ে, এজন্য মানুষের খাদ্য সহায়তার সাথে গবাদি পশুর প্রতিও বিশেষ নজর দেয়া হয়েছে। গো-খাদ্য বিতরণের পাশপাশি অধিকাংশ অসহায় হতদরিদ্র পরিবারের পুষ্টি চাহিদা পূরনের জন্য শিশু খাদ্য হিসেবে প্রায় ২০টি পরিবারের সদস্যদের হাতে গুরুর দুধ তুলেদেন ইউএনও মাসুদ রানা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর