× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

আড়াইহাজারে শালিসে সংঘর্ষ আহত-১৫

বাংলারজমিন

আড়াইহাজার (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি | ৫ আগস্ট ২০২০, বুধবার, ৮:১২

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে গতকাল বিচার-শালিসে দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় উভয়পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে জাহাঙ্গীর আলম, জহিরুল, আল-আমিন, বিল্লাল হোসেন, আলমগীর ও জালাল মিয়াকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা স্থানীয় বিভিন্ন সেবাকেন্দ্রে চিকিৎসা নিয়েছেন। স্থানীয় বগাদী এলাকার মনিরুল গ্রুপ ও বাইলাট বগাদী এলাকার ছাত্তার গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বিচার কার্য চলছিল। বিচারে অংশ নেয়া রাসেল নামে এক যুবক জানান, দুইদিন আগে বাইলাট বগাদী এলাকার এক অটোচালক বেশ ক’জন নারী যাত্রী নিয়ে বিশনন্দী ফেরিঘাট এলাকায় যাচ্ছিলেন। একই সময়ে বগাদী এলাকার অপর আরেকটি অটো দিয়ে এক যুবক যাচ্ছিছিলেন।
যুবক নারী যাত্রীদের উত্যক্ত করছিলেন। এ নিয়ে আড়াইহাজার-গোপালদী সড়কের বাইলাট বগাদী এলাকায় বাকবিত-ার ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে অভিযুক্ত ওই যুবককে আরেক অটোর এক যাত্রী শাসিয়ে বিষয়টি মিটিয়ে দেয়। পরে দুইপক্ষের মধ্যে উত্তেজনার ঘটনা ঘটে। তিনি আরো বলেন, ফতেপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তালেব মোল্লার মধ্যস্থতায় বিচার-শালিস বসানো হয়। এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে দুইপক্ষই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। বাইলাট বগাদী এলাকার সোহেল নামে এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন, বিচার-শালিসে তাদের ওপর হামলা করা হয়েছে। তাকে এক ঘণ্টা পরিষদে আটকে রাখা হয়। পরে পুলিশ গিয়ে উদ্ধার করে। বগাদী এলাকার বিল্লাল হোসেন নামে এক ব্যক্তি বলেন, বিচার-শালিসে আমাদের লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালানো হয়েছে। এতে অনেকেই আহত হয়েছেন। চেয়ারম্যান আবু তালেব মোল্লা বলেন, বিচারে দুইপক্ষের মধ্যে মিমাংসার এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। তবে সামান্য কিছু লোক আহত হয়েছেন। আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে সামান্য উত্তেজনা হয়েছিল। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি আপাতত শান্ত রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর