× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার

ওসি প্রদীপসহ ৩ জনের ৭দিন করে রিমান্ড, ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ২:০৪

টেকনাফে পুলিশের গুলিতে মেজর সিনহার মৃত্যুর ঘটনায় সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ লিয়াকতসহ ৩ জনের ৭ দিন করে রিমান্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া ৪ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসবাদের নির্দেশ এবং পলাতক দু’জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। র্যা বের করা রিমান্ড আবেদনের প্রেক্ষিতে আজ রাত ৮টায় এ আদেশ দেন কক্সবাজারের একটি আদালত। প্রত্যেক আসামির ১০ দিন করে রিমান্ড চেয়েছিল র্যা ব।

এর আগে আদালতে হাজির হয়ে আসামীরা আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মো. হেলাল উদ্দিন।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য হলেন, এসআই দুলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কামাল হোসেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং এএসআই লিটন মিয়া। মামলার বাকি দুই আসামি এসআই টুটুল ও কনস্টেবল মো. মোস্তফা এখনও পলাতক বলে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি ফরিদুল আলম জানান।

এরে আগে দুপুরে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ লাইন্স হাসপাতাল থেকে ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয় বলে জানান চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহবুবর রহমান। ওই সময় তিনি আরো বলেন, চিকিৎসা নিতে আসলে ওসি প্রদীপকে হেফাজতে নেয়া হয়।
এখন তাকে বিশেষ নিরাপত্তায় কক্সবাজার আদালতে পাঠানো হচ্ছে। সেখানে তিনি আত্নসমর্পণ করবেন। তাকে আটক বা গ্রেপ্তার বলা যাবে না। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সূত্র জানায়, টেকনাফে পুলিশের গুলিতে অবসরপ্রাপ্ত মেজর রাশেদ সিনহা নিহতের ঘটনায় টেকনাফ থানার ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে প্রত্যাহার করা হয়। প্রত্যাহারের একদিন আগে নিজেকে অসুস্থ’ দাবি করে ছুটি নেন তিনি।

এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। কিন্তু আদালতের গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী থাকায় তাকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। পুলিশ হেফাজতে তিনি এখন কক্সবাজারের পথে। সন্ধ্যার দিকে তাকে কক্সবাজার আদালতে তোলা হতে পারে।

উল্লেখ্য, ৩১ আগস্ট (শুক্রবার) রাত ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।

এ ঘটনায় বুধবার কক্সবাজারে টেকনাফ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালতে ওসি প্রদীপ ও মো. লিয়াকতসহ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত সাবেক মেজর সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস।

আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে টেকনাফ থানার ওসিকে মামলাটি এফআইআর হিসাবে রুজু এবং র্যা পিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নকে (র্যা ব-১৫) তদন্তের নির্দেশ দেন। এরপর এই ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। এ ঘটনায় ৯ পুলিশ সদস্যসহ ১৭ জনকে প্রত্যাহার করেছে পুলিশ বিভাগ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
বারেক
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৮:৪৬

prodip er ফাঁসি চাই। Malaiun er bacha er koto boro সাহস!!! Send them back to Randia pls.

ভেসেল
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:৫৩

প্রদীপ বাবুদের কিছু হবেনা । কারণ তারা সরকারের খুঁটি । তাদের জোরেই সরকার ক্ষমতায় । সেনাবাহিনীর কিছু সাবেক কর্মকর্তাদের সাময়িক মুখ বন্ধ হবে । তবে ভবিষ্যতে কেউ কিছু বললে গুম হয়ে যাবে ।

জামশেদ পাটোয়ারী
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:৩৫

জনগণের আস্থা হারিয়ে পুলিশই এখন সরকারের শেষ ভরসার স্থল। সুতরাং পুলিশকে যেকোনভাবে বাঁচাতেই হবে। কোন একজন অপরাধী পুলিশকে শাস্তি দিলে পুরো পুলিশেই তার আছড় পড়বে। তাই পুলিশকে সাহস যোগাতে এদের শাস্তির বাইরে রাখতে হবে। সাধারণ মানুষের মাঝে ভয় জাগিয়ে রাখতে পুলিশের কোন বিকল্প নাই। পুলিশের সম্মান রক্ষার্থেই বলা হচ্ছে তাকে আটক বা গ্রেফতার কোনটিই বলা যাবেনা।

Zaman
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৬:২৩

এক দিন সিনহার ভাগ্য জেনারেলদেরকেও বরন করতে হতে পারে। তখনও সেনাবাহিনী বলবে বিচ্ছিন্ন ঘটনা।

ছালাম
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:২০

কত জনে কত কি করলো, কয়েক দিন বকর বকর- তারপর আগের মতই। সেনা সদস্য না হয়ে যদি সাধারণ মানুষ হত- কখনো আমরা জানতাম? তখন পুলিশের ক্রসফায়ার মামলাই মেনে নিতে হতো।

শহীদ
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৭:১১

শারীরিকভাবে অসুস্থ নাকি অমানষিকভাবে? তাকে রিমান্ডে নিবে নাকি “অসুস্থতা জনিত কারণে হাসপাতালে ভর্তি” সুবিধা দেয়া হবে? ”বিচারাধীন বিষয়ে মন্তব্য করতে চাই না”!

Zaman
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:৪৪

মিঃ মাহফুজ এর সংগে আমি একমত। ঐ প্রবিরের কিছুইহবে না।

জিলানী
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৫:০৩

ভাবতে অবাক লাগে কিভাবে রাস্টের সর্বোচ্চ ব্যবস্থা কে, একজন ওসি দাগা দিলেন। এথেকে অনেক প্রশ্নের উত্তর জানতে হবে। কে প্রশ্ন করবেন আর উত্তর কে দিবেন।

Mahfuz
৬ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার, ৩:৫১

প্রদিপদের কিছুই হবেনা। এর মাঝখানে আরোও কত নাটক হবে, একসময় ভুলেই যাবো যেমন ভুলেছি আবরার কে -----।

অন্যান্য খবর