× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার

বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন বিজয়লক্ষ্মী নারী: মোকতাদির

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে | ৮ আগস্ট ২০২০, শনিবার, ৭:২০

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন, বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন বিজয়লক্ষ্মী নারী। বাঙালির স্বাধিকার আন্দোলনে অনেক টার্নিং পয়েন্টে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সাহায্য করেছেন তিনি। ৬ দফা, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে ফিরে আসা এবং ৭ই মার্চের ভাষণের ব্যাপারে ঐতিহাসিক ভূমিকা রয়েছে তার। সে কারণে বঙ্গবন্ধুর চেয়ে তার ভূমিকা কোনো অংশেই কম নয়। একটি অজপাড়া গ্রাম থেকে উঠে এসে শেখ মুজিব যেমন জাতির পিতা হয়েছেন, তেমনি সেখান থেকে উঠে এসে একজন বালিকা বধূ বঙ্গজননীতে পরিণত হন। আটই আগস্ট তার জন্মদিনে আমি তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানায়।
গতকাল দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত সাংবাদিকদের জন্য বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে দেয়া আর্থিক অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। মোকতাদির চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগ যখন প্রথম ক্ষমতায় আসে তখনই সাংবাদিকদের কল্যাণে উদ্যোগ নেয়া হয়।
এজন্যে সে সময় ৫০ লাখ টাকাও দেয়া হয়েছিল। তখন এই উদ্যোগ গ্রহণকারীদের মধ্যে আমিও একজন ছিলাম। কিন্তু পরবর্তী সরকারের সময় তা আবার বন্ধ হয়ে যায়। আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় এসে সেটি চালু করে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সারা দেশে সাংবাদিকরা যে কষ্টে আছেন তা ভুলে যায়নি সরকার। এই আর্থিক প্রণোদনা তাদের উপকারে আসবে। সাংবাদিকরা সত্য ও সুন্দরের পূজারী হয়ে সত্যিকার অর্থেই ফোর্থ স্টেট হিসেবে কাজ করবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। জেলার ৪০ জন সাংবাদিককে এই আর্থিক প্রণোদনা দেয়া হয়। প্রেস ক্লাব আহ্বায়ক খ আ ম রশিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তৃতা করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, প্রবীণ সাংবাদিক মো. সাদেকুর রহমান। প্রেস ক্লাবের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রেস ক্লাবের আসন্ন নির্বাচন প্রসঙ্গে কথা বলেন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতা। জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেন, প্রেস ক্লাবে ব্যক্তিগতভাবে আমার অনেক পছন্দের মানুষ আছে। কিন্তু নির্বাচনে আমার পছন্দ-অপছন্দের প্রকাশ ঘটবে না সেটি আমি আল্লাহকে হাজির-নাজির রেখে বলছি। এটা এ্যাবসুলেটলি ক্লাব সদস্যদের ব্যাপার। কাকে ভোট দেবেন, না দেবেন সেটা আপনাদেরই চয়েজ। জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার বলেন, প্রেস ক্লাব নির্বাচনে আমরা সরাসরি কোনো প্রার্থীর পক্ষে যাব না। প্রার্থী সিলেকশনের ক্ষেত্রেও আমাদের কোনো পছন্দ থাকবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর