× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, রবিবার

ধানমন্ডিতে বাড়ি আত্মসাৎ, ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৩:৪৯

ভুয়া দলিল করে ধানমণ্ডিতে বাড়ি আত্মসাতের মামলায় সংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার আদালতে দুদকের উপ-পরিচালক মো জাহাঙ্গীর আলম এ চার্জশিট দাখিল করেন।

চার্জশিটে বলা হয়েছে, ঢাকার ধানমন্ডি আবাসিক এলাকার প্লট নম্বর ৭০ (পুরাতন) ১০ (নতুন), রোড নম্বর ২ এর ১ বিঘা সরকারি জমিসহ বাড়িটি আত্মসাৎ করেছেন ফিরোজ রশীদ। ওই বাড়িটি সরকারিভাবে মোহাম্মদ আলীর অনুকূলে বরাদ্দ দেয়া হয়। যা পরবর্তীতে মরহুম মোহাম্মদ আলীর দ্বিতীয় স্ত্রী বেগম আলেয়া মোহাম্মদ আলী, পুত্র সৈয়দ মাহমুদ আলী ও কন্যা সৈয়দা মাহমুদা আলীর বরাবরে হস্তান্তর করা হয়।

চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়, ১৯৭০ সালের ৩০শে মে বাড়িসহ জমি তাদের যৌথ নামে নামজারি করা হয়। কিন্তু কাজী ফিরোজ রশীদ ১৯৭৯ সালের ১৬ই আগস্ট রেজিস্ট্রিকৃত ডিড অব এগ্রিমেন্ট ফর সেল নম্বর ৩১১৫৪ দলিলে ভুয়া দাতা বেগম আলেয়া মোহাম্মদ আলী ও সাক্ষী কাজী আরিফুর রহমান সাজিয়ে তৎকালীন জেলা রেজিস্ট্রার এম আহমেদ (মৃত) এর সহযোগিতায় দলিল তৈরি করেন। জমিটি কাজী ফিরোজ রশীদ দখলে রেখে অপরাধ করায় দুদক তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে।

এর আগে এ অপরাধে কাজী ফিরোজ রশীদের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ৫ই এপ্রিল দুদকের তৎকালীন উপ-পরিচালক (বর্তমানে পরিচালক) মো জুলফিকার আলী বাদী হয়ে তেজগাঁও শিল্পঞ্চাল থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Belal RAHMAN
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৭:৫৯

Ara kotha bole ferestar moto kaj kore soytaner moto.

Hasan Shareef Ahmed
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৮:২৭

Shob ........ chor.

Badsha Wazed Ali
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৮:০৮

অথচ, কাজী ফিরোজ রশিদ টক শোতে যেন ফেরেস্তার মত কথা বলেন। শুনে মনে হয়, এই একজনই ভাল মানুষ রাজনীতিবীদ হিসাবে আছেন। উনি অতীত নিয়ে কথা বলতে ভালবাসেন। ছাত্র রাজনীতিতে তার বর্নাঢ্য জীবন কাহিনী শুনতে আমার ভালই লাগে। আমি বুঝিনা সাংবাদিক ভাইগন কেন তাদের জায়গা করে দেন? এরপর কার কথা শুনতে হবে, আল্লাহ জানেন। এই মামলায় হয়তো আপীল হবে। উচ্চ আদালতে যাবে। এখনই তাকে অভিযুক্ত করার সময় আসেনি।

Syed Islam
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৮:০৬

Kazi Firoz Rashid is one of the corrupted politicians in our country. Unfortunately, he is still a current MP of our contry. He attends many talk shows in the TV channels. He is the garbage of our politics. Politics in our country is rotten egg.

শহীদ
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৭:৪৭

রাজনীতিতে প্রভাব বলয় তৈরি করার পেছনে অবশ্যই আর্থিক লাভটা বড় কিছু।

Manjour kadir
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৬:১৯

Enybody help me .I want leave this country with my fsmily ...no future here .

Rahim
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৫:৪৫

Ai lok to talk show te eshe boro boro kotha bolen especially tritiyo matra.Era kichu popular kotha bole manushke gomrah kore

N Islam
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৪:৫৯

এরশাদ আমলে ফিরোজ রশিদ সাহেবের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত ব্যাংক ডাকাতির মামলার খবর কেউ বলতে পারবেন ?

Md. Harun al-Rashid
১০ আগস্ট ২০২০, সোমবার, ৫:৫৪

মন্তব্য করে কি হবে, স্যালুকাস!

অন্যান্য খবর