× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

সোনাইমুড়ীতে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা

বাংলারজমিন

সোনাইমুড়ী (নোয়াখালী) প্রতিনিধি | ১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার, ৯:০১

 নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে স্ত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়েছে ঘাতক স্বামী আবু তাহের। গত সোমবার দিবাগত রাতের কোনো এক সময়ে উপজেলার ৯নং দেওটি ইউপির ৮নং ওয়ার্ড দেওটি সমর উল্যা হাজী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন শাকিল ও পুত্রবধূ আসমা আক্তার জানান, পার্শ্ববর্তী চাটখিল উপজেলার খিলপাড়া ইউপির ওমরপুর গ্রামের মৃত নূর হোসেন ওরফে হাসান আলীর ছেলে ঘাতক আবু তাহের বিবাহের পর থেকে শ্বশুরবাড়িতে বসবাস করে আসছিল। বিগত ১০ বছর থেকে পরিবারের মধ্যে বিভিন্ন সময় কলহ দেখা দেয়। এ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে একাধিকবার সালিশ বৈঠকের মাধ্যমে সুরাহা হয়। মাঝেমধ্যে ঘাতক আবু তাহের বাড়ি থেকে বের হয়ে দেড়/দুই বছর নিরুদ্দেশ থাকার পর, হঠাৎ বাড়িতে আসলে কোথায় ছিলে জানতে চাইলে ও নানা অজুহাতে স্ত্রীর ওপর চড়াও হয়। অনেক সময় পুত্রবধূদের সামনেও এ বৃদ্ধ মহিলাকে মারধর করতো। গত সোমবার প্রতিদিনের মতো সবাই খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়লে, রাতের কোনো এক সময়ে ঘাতক স্বামী আবু তাহের স্ত্রী তাজনেহারকে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়।
সকালে রুমের দরজা বন্ধ দেখে পুত্রবধূ শাশুড়ি তাজনেহার বেগমকে ডাকতে গেলে রক্তাক্ত অবস্থায় গলা কাটা পড়ে থাকতে দেখতে পেয়ে চিৎকার দেয়। এ সময় পরিবারের অন্য সদস্যদের মধ্যে কান্নার রোল ও শোর চিৎকারে আশপাশের মানুষ এসে বিষয়টি জানতে পারে। খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।
 
সোনাইমুড়ী থানার ওসি (তদন্ত) জিসান আহমেদ সাংবাদিকদের জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘাতক স্বামী আবু তাহের স্ত্রী তাজনেহারকে হত্যা করেছে বলে প্রতীয়মান হয়। তদন্তে বিস্তারিত জানা যাবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর